শুক্রবার, এপ্রিল ১২, ২০২৪
Homeটাঙ্গাইল জেলাটাঙ্গাইলে রাস্তা নিয়ে বিরোধ, দু’পক্ষের পাল্টা হামলায় শিশুসহ আহত ১৩

টাঙ্গাইলে রাস্তা নিয়ে বিরোধ, দু’পক্ষের পাল্টা হামলায় শিশুসহ আহত ১৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বাড়িতে যাতায়াতের রাস্তা নিয়ে বিরোধের জেরে বঙ্গবন্ধু সেতু (সাইট) অফিসের কর্মচারী আক্তার মিয়ার বাড়িতে হামলা ও আসবাবপত্র ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় মাতাব্বর আয়নাল ও তার প্রতিবেশী শামীম নামে এক পল্লী চিকিৎসকের বিরুদ্ধে।

এ হামলার ঘটনায় আক্তার মিয়া ও তার মা-বাবা, স্ত্রী-সন্তানসহ একই পরিবারের ৯ জন আহত হয়েছে। তারমধ্যে ২ জন ভূঞাপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে। বাকিরা বাড়িতে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সোমবার (১৮ মার্চ) সকাল ১০ টার দিকে উপজেলার অলোয়া ইউনিয়নের আমুলাদহ ভরাট দক্ষিণ পাড়া গ্রামের আক্তার মিয়ার বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে।

এরআগে রবিবার (১৮ মার্চ) রাতে রাস্তা নিয়ে এক সালিশি বৈঠক হয়। সেই বৈঠক শেষ হলে বাড়ি ফেরার পথে আক্তার মিয়ার বিরুদ্ধে মাতাব্বর আয়নাল উপর হামলার করে বলে অভিযোগ করেন প্রতিবেশি শামীম। এতে তিনিসহ ৪ জন আহত হয়। এদের মধ্যে একজন টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এনিয়ে উভয়পক্ষের মোট ১৩ জন আহত হন।

আহত আক্তার মিয়া জানান, আমুলাদহ ভরাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যাওয়ার জন্য ৮ ফুটের একটি রাস্তা রয়েছে। কিন্তু প্রতিবেশি শামীম ও মাতাব্বর আয়নাল আরও দুই ফুট জায়গা রাস্তার জন্য ছেড়ে দিতে বলে আক্তার মিয়াকে। এটা নিয়ে গত রবিবার ১৮ মার্চ রাতে গ্রাম্য সালিশও অনুষ্ঠিত হয়। সালিশে সবাই জোরপূর্বক রাস্তার জন্য আরও ২ ফুট জায়গা দাবি করে শামীম।

এনিয়ে একপর্যায়ে ওই সালিশে মারামারির ঘটনা ঘটে। পরে রাস্তা ঘেঁষে ঘর নির্মাণ কাজ চলাকালে আজ সোমবার সকালে মাতাব্বর আয়নাল ও প্রতিবেশি শামীমের নেতৃত্ব ২০/২৫ জন লোক এসে কাজে তাতে বাঁধা দেন। পরে আমার পরিবারের লোকজন বাঁধা দিতে গেলে তারা পরিবারের শিশুসহ ৯জনকে পিটিয়ে আহত করে এবং বাড়িঘরসহ আসবাবপত্র ভাঙচুর টাকাসহ স্বর্ণ লটু করে নেয় তারা। পরে দুপুরে এনিয়ে ভূঞাপুর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি।

প্রতিবেশি চিকিৎসক শামীমের ভাতিজা আহত নাজমুল জানান, স্কুলের পাশে যাতায়াতের রাস্তাটিতে ভ্যান চলাচল করতে পারে না। সরকারি ওই রাস্তার জায়গা ছেড়ে দেয়ার জন্য গ্রাম্য সালিশেও আক্তার মিয়াদের জানানো হয়। কিন্তু তারা জায়গা ছেড়ে না দিয়ে রান্না ঘর নির্মাণ করে। এসময় স্কুলের রাস্তার জায়গা ছেড়ে নির্মাণের কথা বললে আক্তারের লোকজন হামলা করে ৪জনকে আহত করে। পরে তাদের হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। এতে গুরুত্বর আহত আব্দুল হাইকে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

অলোয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিক বলেন, মারামারির বিষয়টি জেনেছি। শুনেছি- এনিয়ে একটি পক্ষ থানায় অভিযোগ দিয়েছে।

এ বিষয়ে ভূঞাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আহসান উল্লাহ্ জানান, আমুলা দহভরাট এলাকায় রাস্তা সংক্রান্তের মারামারির ঘটনায় আয়নাল নামে একপক্ষের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। অপরাধীদের ছাড় দেয়া হবে না।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -