সোমবার, মে ২৭, ২০২৪
Homeজাতীয়বিয়েবাড়িতে প্রেমিকের সামনে পেটে ছুরি চালালেন প্রেমিকা

বিয়েবাড়িতে প্রেমিকের সামনে পেটে ছুরি চালালেন প্রেমিকা

বরবেশে বিয়ে করতে যাওয়ার অপেক্ষায় বসেছিলেন পাপ্পু মিয়া (২২)। বাড়িভর্তি স্বজনরা। এর মধ্যেই সেখানে ছুটে আসেন এক নারী। পাপ্পুকে বরের সাজে দেখেই নিজের পেটে ছুরিকাঘাত করেন ২৫ বছর বয়সী ওই নারী। এসময় তিনি দাবি করেন, পাপ্পুর সঙ্গে তার প্রেম ছিল।

মনি আক্তার (২৫) নামের ওই তরুণী বিবাহিত এবং এক সন্তানের জননী। ঘটনার পর বিয়ে ফেলে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন পাপ্পু।

ছুরিকাঘাতের পর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

বৃহস্পতিবার (১৬ মার্চ) বিকেলে নেত্রকোনার মদন উপজেলার কাইটাইল ইউনিয়নের বাঁশরী কান্দাপাড়া গ্রামে এমনই ঘটনা ঘটেছে।

পাপ্পু মিয়া বাঁশরী গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে। প্রেমিকা মনি আক্তার জেলার মদন নায়েকপুর ইউনিয়নের আখাঁশ্রী গ্রামের শাজাহান মিয়ার মেয়ে।

পাপ্পুর পরিবারের ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, মনি আক্তার ও পাপ্পু দুজনের মধ্যে দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। মনি চট্টগ্রামের একটি পোশাক কারখানায় শ্রমিকের কাজ করেন। পাপ্পু এলাকায় একটি ইলেকট্রিক দোকান দিয়ে ব্যবসা করেন। মোবাইল ও ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের প্রেম হয়। প্রেমের সূত্রে অনেকবার চট্টগ্রামে গিয়েছেন পাপ্পু। নানা জায়গায় তারা ঘুরে ফিরে একত্রে থেকেছে।

সম্প্রতি পাপ্পুর পরিবার জেলার কেন্দুয়া উপজেলার চিতুলিয়া গ্রামের দুলাল মিয়ার মেয়ে দুলেনা আক্তারের সঙ্গে বিয়ে ঠিক করে। দুই পরিবারেই চলে বিয়ের ধুমধাম। নতুন বউকে তুলে আনতে বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে বরযাত্রী নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল পাপ্পুর। কিন্তু প্রেমিক অন্যত্র বিয়ে করছে পরিচিত কারও কাছ থেকে খবর পেয়ে বুধবার রাতের বাসে করে চট্টগ্রাম থেকে এলাকায় আসেন মনি আক্তার।

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে বরযাত্রী রওনা হওয়ার মুহূর্তে পাপ্পুর বাড়িতে গিয়ে হাজির হন মনি আক্তার। একপর্যায়ে ক্ষোভে বিয়ে বাড়িতেই নিজের পেটে ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান মনি। ঘটনা দেখে বিয়ে ফেলে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান পাপ্পু।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে মদন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাওহীদুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -