শনিবার, জুন ১৫, ২০২৪
Homeটাঙ্গাইল জেলাভূঞাপুরে মা-বাবা ও ছেলেসহ এক পরিবারের ৪ জনই মাদক বিক্রেতা!

ভূঞাপুরে মা-বাবা ও ছেলেসহ এক পরিবারের ৪ জনই মাদক বিক্রেতা!

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাদক কেনা-বেচার অভিযোগে ছুরমান আলী নামে এক মাদক বিক্রেতার বাড়ি ঘেরাওয়ের ঘটনা ঘটেছে। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ভিডিও পোস্ট হলে তা মুহুর্তেই ভাইরাল হয়। মাদক বিক্রেতা ছুরমান আলীর বাড়ি টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের স্থলকাশি গ্রামে। গত শুক্রবার (২৪ মে) জুমা’র নামাজ শেষে ছুরমান আলীর বাড়ি ঘেরাও করে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ও মুসল্লিরা।

ভাইরাল ওই ভিডিওতে দেখা যায়- এলাকাবাসী ও মুসল্লিরা মাদক বিক্রেতা ছুরমান আলীর বাড়িতে গত শুক্রবার দুপুরে সমবেত হন। পরে তাকে এই অপরাধমূলক কর্মকান্ড থেকে দূরে সরে আসতে আহবান জানান। এ সময় উপস্থিত লোকজনের কাছে তিনি মাদক বিক্রি করবেন না জানিয়ে প্রতিশ্রুতি দেন।

মাদক বিক্রির বিষয়টি স্বীকার করে ছুরমান আলী উপস্থিত এলাকাবাসীর কাছে বলেন- ‘তিনি এরআগে মাদক কেনা-বেচার সঙ্গে জড়িত ছিলেন এবং এখন থেকে এসব আর বিক্রি করবেন না বলে জানিয়ে ক্ষমা চান।’

গোবিন্দাসী উচ্চ বিদ্যালয়ের ট্রেড সহকারী ও স্থলকাশি গ্রামের মামুন সরকার বলেন- ‘মাদক বিক্রেতা ছুরমান, তার স্ত্রী ফাতেমা বেগম ও ছেলে সোহাগ মিয়া এবং তার স্ত্রী দীর্ঘদিন যাবৎ কৌশলে হিরোইন, ইয়াবা ও গাঁজাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য বিক্রি ও সেবনসহ এবং তারা বিভিন্ন এলাকায় মাদক ব্যবসায়ী ও সেবনকারীদের কাছে বিক্রি করে।’

তিনি আরও জানান- ‘মাঝে মাঝে পুলিশ তাদের ধরে নিয়ে গেলেও আবার ব্যবসা শুরু করে। বিষয়টি নিয়ে তাকে একাধিকবার নিষেধ করা হলেও সে মানে না। যারফলে এলাকার তরুণ ও যুব সমাজ নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। মাদক বিক্রিরোধে গত শুক্রবার জুমা’র নামাজের পর শেষবারের মতো তাকে মাদক বিক্রি থেকে নিষেধ করতে তার বাড়ি ঘেরাও করা হয়।’

এ ব্যাপারে ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আহসান উল্লাহ বলেন- ‘গত শুক্রবার গোবিন্দাসী স্থলকাশি গ্রামে একজনের বাড়ি ঘেরাওয়ের বিষয়টি অবগত রয়েছি। মাদকদ্রব্য বিক্রি ও মাদক স¤্রাট ও সেবনকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত অভিযান চলছে এবং তাদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হচ্ছে।’

এরআগে গত ২৩ মার্চ শনিবার সন্ধ্যায় টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলার একই ইউনিয়নের কয়েড়া গ্রামের দক্ষিণপাড়া এনায়েতের ছেলে ‘মাসুদ এলাকার মাদক সম্রাট। সে হিরোইন খোর ও ইয়াবা ব্যবসায়ী। তাই তার পিঠের চামড়া থাকবে না’ এমন কথা মাইকিং করেন তার প্রতিবেশী দিপু মোল্লা নামে এক যুবক। এনিয়েও একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয় এবং এলাকাজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠে।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -