রবিবার, এপ্রিল ১৪, ২০২৪
Homeটাঙ্গাইল জেলামির্জাপুরমির্জাপুরে নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৯, উপজেলায় বেড়ে দাঁড়ালো ৬৪

মির্জাপুরে নতুন করে করোনা আক্রান্ত ৯, উপজেলায় বেড়ে দাঁড়ালো ৬৪

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে গত ২৪ ঘন্টায় একই পরিবারের তিনজনসহ আরও ৯ জনের শরীরে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) শনাক্ত হয়েছে। এখন পর্যন্ত যা মির্জাপুরে একদিনে রেকর্ড সর্বোচ্চ সংখ্যক শনাক্তের নতুন রেকর্ড। এ নিয়ে উপজেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৬৪ জন। সব মিলিয়ে টাঙ্গাইল জেলায় করোনা আক্রান্তের শীর্ষে অবস্থান করছে মির্জাপুর।

শনিবার (১৩ জুন) সকালে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদা খানম। একই পরিবারের তিনজনের মধ্যে দাদা ও নাতি-নাতনি রয়েছে বলে তিনি জানান।

এদের মধ্যে- উপজেলার গোড়াই ইউনিয়নে ৩ জন, বানাইল ইউনিয়নে ৩ জন, ভাওড়া ইউনিয়নে ২ জন এবং মির্জাপুর সদরের একজন রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নতুন আক্রান্ত নয়জন হলেন- মির্জাপুর সদরের বাজার এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর হোসেন (৫৫), উপজেলার ভাওড়া ইউনিয়নের দেওয়ান পাড়া গ্রামের দেওয়ান লিটন (৩০), একই ইউনিয়নের পাহাড়পুর গ্রামের তারেক আজিজ (২৪) যিনি আশকবর ভবনে ভাড়া থাকেন।

এছাড়াও বানাইল ইউনিয়নের ভাবখন্ড গ্রামের বৃদ্ধ মো. নূরুল হক (৬৫) এবং তার ছেলের ঘরের নাতি রেদোয়ান আহমেদ (০৮) ও দুই বছর বয়সী নাতনি মালিহা। যদিও তিনি তার ছেলের সাথে সপরিবারে রাজধানীর দক্ষিণ রাজারবাগের বাসাবো এলাকায় ভাড়া থাকেন। বর্তমানে তারা সবাই ঢাকার বাসায় রয়েছেন।

অন্যদিকে গোড়াই ইউনিয়নের গোড়াই ক্যাডেট কলেজের অফিস সহকারি মো. মনিরুজ্জামান (৪৫)। তিনি ক্যাডেট কলেজের কোয়ার্টারে থাকেন। একই ইউনিয়নের সাউথইস্ট টেক্সটাইল নামের পোশাক কারখানায় কর্মরত পোশাক শ্রমিক আব্দুল্লাহ আল মামুন (৩৫), যিনি ওই কারখানার ডরমিটরিতে থাকেন। তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ সদরে।

অপর একজন সজীব রহমান (৩০) যিনি নিউটেক্স কারখানায় কর্মরত আছেন। তার স্থায়ী ঠিকানা পাবনা সদরে হলেও তিনি গোড়াই শিল্পাঞ্চল এলাকায় বাসাভাড়া থাকেন। বর্তমানে তিনি গ্রামের বাড়ি পাবনাতে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয় স্বাস্থ্য বিভাগ সূত্রে জানা যায়, গত ০৭ জুন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মাধ্যমে মির্জাপুর থেকে প্রেরিত ২১ টি নমুনার মধ্যে আজ শনিবার প্রাপ্ত রিপোর্ট অনুযায়ী ওই নয়জনের দেহে পজিটিভ ধরা পড়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মালেক বলেন, অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে নতুন আক্রান্তদের বসতবাড়িসহ আশপাশের বাড়ি লকডাউন ঘোষণার প্রস্তুতি চলছে।

উল্লেখ্য, মির্জাপুরে এ পর্যন্ত সর্বমোট শনাক্ত ৬৪ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন একজন এবং সুস্থ হয়েছেন মোট ১৩ জন। এছাড়াও বিভিন্ন হাসপাতাল এবং মির্জাপুর, ঢাকা, নরসিংদী ও পাবনাতে নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন মোট ৫০ জন।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -