সোমবার, মে ২৭, ২০২৪
Homeজাতীয়শীতে পোশাকের যত্ন

শীতে পোশাকের যত্ন

শীতের পোশাকেরও বাড়তি যত্নের প্রয়োজন রয়েছে। লিনেন বা উলের প্রিয় সোয়েটার, চামড়ার জ্যাকেট, মাফলার, কানটুপি, লেপ, কম্বল বা চাদর নিত্য ব্যবহারে মলিন হয়ে পড়ে। কিন্তু অন্যান্য পোশাকের মতো সাধারণ উপায়ে পরিষ্কার করা সম্ভব হয় না। কিভাবে শীতের পোশাকের যত্ন নিতে হবে তা নিয়ে এই আয়োজনটি লিখেছেন প্রাঞ্জল সেলিম

পশমি কাপড়ের রং ওঠার আশঙ্কা থাকলে তা আলাদা করে পানিতে ধুয়ে নিন। ধোয়ার সময় পানিতে সাদা কাপড়ের বেলায় লেবুর রস এবং রঙিন কাপড়ের বেলায় ভিনেগার মিশিয়ে নিন। এতে কাপড়ের ঔজ্জ্বল্য ঠিক থাকবে। উলের কাপড় ধোয়ার সময় কখনোই ব্রাশ দিয়ে ঘষবেন না। ডিটারজেন্ট পানিতে উলের কাপড় ভিজিয়ে কিছুক্ষণ পর দুই হাত দিয়ে কেচে নিন। এতে কাপড়ের ভেতর জমে থাকা ময়লা দূর হয়ে যাবে। উলের কাপড় ধুয়ে পানি নিংড়ানোর জন্য বড় আকৃতির তোয়ালের মধ্যে কাপড়টি জড়িয়ে দুই হাত দিয়ে চেপে পানি নিংড়িয়ে নিন। উল বা পশমি কাপড় এক ঘণ্টার বেশি সময় পানিতে ভিজিয়ে না রাখাই ভালো। উল বা পশমি কাপড় কখনোই কড়া রোদে শুকাতে দেবেন না। হাতমোজা ও মাফলার ধোয়ার সময়ও একই পদ্ধতি অনুসরণ করুন।

লেদারের কাপড় বাড়িতে পরিষ্কার না করে উপযুক্ত লন্ড্রিতে দিয়ে পরিষ্কার করিয়ে নিন। কয়েক বছর পরপর লেদার জামাকাপড়ের ভিতরের লাইনিং বদলানো জরুরি। লেদার যদি খুব পাতলা হয় তা হলে হোয়াইট টিস্যুর প্যাডিং দিয়ে নিন। ব্লেজার বেশি রোদে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।

উলের কাপড় ধোয়ার জন্য কম ক্ষারযুক্ত সাবান, ডিটারজেন্ট পাউডার ও শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। কাপড়ে ব্লিচ যত কম ব্যবহার করা যায় তত ভালো। শুধু সাদা কাপড় উজ্জ্বল করার জন্য আর দাগ তুলতে ব্লিচ ব্যবহার করুন। উলের জামা ধুয়ে ভাঁজ না করে ঝুলিয়ে রাখুন। উলের জামাকাপড় বেশি ড্রাই ক্লিনিং না করাই ভালো। ইস্ত্রি করার সময় সোয়েটার বা শাল উলটে নিন। স্টিম দিয়ে ইস্ত্রি করার চেষ্টা করুন, গরম ইস্ত্রি সরাসরি যেন উল স্পর্শ না করে সেদিকে লক্ষ রাখুন। তাছাড়া পশমি বা উলের কাপড় ইস্ত্রি করার সময় এর ওপর সুতির কাপড় বিছিয়ে নিলে কাপড় ইস্ত্রি অনেক সহজ হয়।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

- Advertisement -
- Advertisement -