ব্রেকিং নিউজ :

ভর্তি জালিয়াতি চক্রের মুল হোতাসহ আটক ৪, অপহৃত ছাত্র উদ্ধার

 

 পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি জালিয়াতি সংঘবদ্ধ চক্রের মুল হোতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ছাত্র রোকনসহ চার সদস্যকে গ্রেপ্তার ও ভর্তি জালিয়াত চক্র কর্তৃক অপহৃতকে উদ্ধার করেছে টাঙ্গাইল র‌্যাব।

শনিবার দুপুরে র‌্যাব কাযালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে টাঙ্গাইল র‌্যাব ১২ এর কোম্পানী কমান্ডার বীণা রানী দাস জানান, একটি সংঘদ্ধ চক্র টাকার বিনিময়ে দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভুয়া পরীক্ষার্থী সেজে পরীক্ষা দিয়ে ছাত্র ভর্তি করে থাকে।

ভর্তির পর কোন প্রার্থী টাকা দিতে অস্বীকার করলে তাদের অপহরণ করে মুক্তিপণের মাধ্যমে টাকা আদায় করা হয়। তার ধারাবাহিকতায় টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলার খিলগাতী গ্রামের মোঃ আব্দুল মতিনের ছেলে মোঃ সালেহ সৌরভ দিনাজপুরের হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য ঐ জালিয়াত চক্রের সাথে যোগাযোগ করে।

পরে জালিয়াত চক্র সৌরভের হয়ে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করে এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে এগ্রি ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তির সুযোগ পায়। কিন্তু সৌরভ ভাল বিষয়ে সুযোগ না পাওয়ায় ঐখানে ভর্তি হয় না। পরে ভর্তি জালিয়াত চক্র সৌরভের নিকট টাকা দাবি করে।

কিন্তু সৌরভ টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে জালিয়াত চক্র গত ১৫ এপ্রিল টাঙ্গাইল সদর থানা এলাকা হতে তাকে অপহরণ করে। অপহরণের পর জালিয়াত চক্র সৌরভের পিতার নিকট চার লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

পরে সৌরভের পিতা এই বিষয়টি টাঙ্গাইল র‌্যাবকে জানালে র‌্যাব জালিয়াত চক্র অপহরণকারীদের গ্রেফতারে অভিযান শুরু করে। অভিযানের এক পর্যায়ে র‌্যাব সাদা পোশাকে অপহরণকারীদের মুক্তিপণ দিয়ে সৌরভকে উদ্ধার করতে যান।

পরে শুক্রবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকার নিউমার্কেট থানা এলাকার নীলক্ষেত থেকে মুক্তিপণ নেয়ার সময় ভর্তি জালিযাত চক্রের অপহরণকারীদের গ্রেফতার করে ও অপহৃত সৌরভকে উদ্ধার করে।

গ্রেফতারকৃত ভর্তি জালিয়াত চক্রের সদস্যরা হচ্ছে নোয়াখালী জেলার সুধারামপুর থানার এওজবালিয়া গ্রামের মো. আনোয়ার হোসেন রোকন (২৬), মো. ইসমাইল হোসেন রুবেল (২৭), টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার কাটালিয়া আটা গ্রামের মো. আক্তারুজ্জামান খোকন (২১) ও শ্যামলী মাস্টার পাড়ার মো. জাকারিয়া সরকার (২২)।

এই জালিয়াত চক্রটি দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে টাকার বিনিময়ে ভর্তি পরীক্ষায় ভুয়াপরীক্ষার্থী হিসেবে অংশ গ্রহন করতো। তাদের বিরুদ্ধে টাঙ্গাইল মডেল থানায় একটি অপহরণ মামলা দিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.