সখীপুরে ভাসুরের কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ছোট ভাইয়ের বউ ও মেয়েকে পিটিয়ে আহত

 

এম সাইফুল ইসলাম শাফলু :
টাঙ্গাইলের সখীপুরে লম্পট ভাসুরের কুপ্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় ছোট ভাইয়ের স্ত্রী আসমা বেগম (৩০) ও তাঁর মেয়ে তাসলিমাকে (১০) পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার যাদবপুর মধ্যটানপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় রাতেই মা ও মেয়েকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনা থানায় মামলা করা হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার যাদবপুর মধ্যটানপাড়া গ্রামের ধলা মিয়ার ছেলে তিন সন্তানেন জনক মজিবর রহমান দীর্ঘদিন ধরেই তার সহোদর ছ্টো ভাই তজিবর রহমানের স্ত্রীকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। তজিবর বিদেশ থাকায় তজিবরের স্ত্রী আসমা বেগম দুই মেয়ে তাসলিমা ও তায়েবাকে নিয়ে পৃথক বাড়িতে থাকেন। কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় বুধবার সন্ধ্যায় ভাসুর মজিবর রহমান তজিবরের বাড়িতে গিয়ে তার স্ত্রী আসমাকে লাঠি দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে মেয়ে তাসলিমাকেও পিটিয়ে আহত করে।
প্রসঙ্গত: লম্পট মজিবর রহমান গত ১৮ অক্টোবর একই গ্রামের পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টার মামলায় জেল হাজত থেকে দুই মাস আগে জামিনে বেরিয়ে আসে।
আসমা বেগম বলেন, মজিবর আমার আপন ভাসুর হলেও সে বিভিন্ন সময় আমাকে কুপস্তাব দিতো। বুধবার বিকেলে সে আমাকে মোবাইল ফোনে কু-প্রস্তাব দিলে আমি তাকে গালাগালি করি। পরে সন্ধ্যায় সে ক্ষিপ্ত হয়ে আমাকে ও আমার মেয়েকে পিটিয়ে আহত করে।
আসমার ভাই প্রকৌশলী আলা উদ্দিন বলেন, মজিবর গ্রামের মধ্যে একের পর এক অপকর্ম করে বেড়াচ্ছে। আমরা তার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি চাই।
সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাকছুদুল আলম বলেন, ওই বখাটের বিরুদ্ধে এর আগেই থানায় একটি ধর্ষণ মামলা রয়েছে। তাকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের হাতে সোপর্দ করা হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.