ব্রেকিং নিউজ :

টাঙ্গাইলে স্লুইস গেট দখল করে ধান ও মাছ চাষ

মো: খাইরুল ইসলাম,

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার চাপড়ি স্লুইস গেট দখল করে ধান ও মাছ চাষ করা হচ্ছে। স্লুইস গেট কমিটির সভাপতি মজনু মিয়া তার চার ভাইসহ ১০ জনকে নিয়ে দখল করে আছেন।

মজনু মিয়া টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের অসাধু কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ধান চাষসহ সরকারি জমিতে দু’তলা ফাউন্ডেশন করে বাসা করেছেন বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ১৯৯৩ সালে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের স্মৃতি বিজড়িত কাহারে খাল থেকে বংশাই নদী মুখে চাপড়ি রেগুলেটর নামে এ স্লুইস গেটটি নির্মাণ করে পানি উন্নয়ন বোর্ড।

চাপড়ি মৌজার ১৭২ নং দাগের প্রথমে ৪ একর এবং পরে আরো ৮০ শতাংশ জমি স্লুইস গেটের নামে একোয়ার করে সরকার। টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের সেকশন অফিসার (এসও) মো.আবু সাইদের সাথে যোগসাজশ করে মজনু (৬৫),গিয়াস (৬৩).জোয়াহের (৫০) জয়নাল (৪৫), আজিজ (৪০),সাবেক ইউ.পি সদস্য কান্দু মিয়া (৫৫),মতিয়ার রহমান (৫০) শমশের (৪৮),তাহের (৩৮),খোকা (৫২),মিন্টু (৫২),খসরু (৫৩) স্লইস গেটের জমি দখল করে ধান চাষ করছেন। স্থানীয় আ.ছাত্তার বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ করলেও পরে তিনি মাছ সরিয়ে নিয়ে বাঁধ কেটে দিয়েছেন।

সাবেক ইউ.পি সদস্য কান্দু মিয়া জানান, স্লুইস গেট করার সময় পানি উন্নয়ন বোর্ডের লোকের সাথে আমাদের চুক্তি হয়েছে যার যা জমি একোয়ার হয়েছে সে সেই জমি দখল করে খাবেন।

স্থানীয় আ. ছাত্তার জানান, এসও আবু সাইদ দখলকারিদের কাছ থেকে ধান বাবদ টাকা টাকা নেন। এবং গত মে মাসে তিনি স্লুইস গেটে ৬০ হাজার টাকার রং ৫ হাজার টাকায় করেছেন।

এ ব্যাপারে সেকশন অফিসার (এসও) মো.আবু সাইদ মুঠোফোনে জানান, ‘আমি নতুন এসেছি, এত কিছু জানি না।’

টাঙ্গাইল পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো.শাহজাহান জানান, আমি সরেজমিনে গিয়ে খোঁজ নেব।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.