সখীপুরে বিধবাকে খুন; ছেলে ও মেয়ের জামাই আটক

 

এম সাইফুল ইসলাম শাফলু :
টাঙ্গাইলের সখীপুরে দাঁ দিয়ে কুপিয়ে রওশনারা (৫৫) নামের এক বিধবা মহিলাকে খুন করেছে দূবৃত্তরা। উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের ছোট চওনা গ্রামের পাইনার বাইদপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার একদিন পর মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ওই বিধবার রক্তাক্ত লাশ ও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দাঁ উদ্ধার করেছে সখীপুর থানা পুলিশ। নিহত রওশনারা ওই গ্রামের মৃত আব্দুল আলীর স্ত্রী। বুধবার সকালে নিহতের ভাই আবদুল লতিফ বাদী হয়ে অজ্ঞাতদের আসামি করে সখীপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। লাশ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় জিঙ্গাসাবাদের জন্য নিহদের ছেলে আবদুর রশিদ ও মেয়ের জামাই আবু সাইদকে আটক করেছে পুলিশ।
পুলিশ ও নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, দুই সন্তানের জননী রওশনারা স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে ওই বাড়িতে একাই থাকতেন। মেয়েকে বিয়ে দিয়েছেন। ছেলেও বিয়ে করে ব্যবসায়ীক কাজে সখীপুর পৌরসভা এলাকায় বাসায় থাকেন। মঙ্গলবার সারাদিন প্রতিবেশীরা রওশনারাকে দেখতে না পেয়ে তাঁর খোঁজে রাত ৯ টার দিকে তার বাড়িতে গিয়ে ঘরের দরজা তালবদ্ধ দেখতে পায়। পরে মোবাইল ফোনে কল করলে ঘরের ভেতরে ফোন বেজে ওঠে। এ সময় প্রতিবেশীরা তালাবদ্ধ ঘরের দরজার ফাঁকা দিয়ে টর্চলাইটের আলোতে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই মহিলাকে মেঝেতে পড়ে থাকতে দেখে তাঁর সন্তানদের খবর দেয়। এ ঘটনা পুলিশকে জানালে ওই রাতেই রওশনারার লাশ ও হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত দাঁ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।
নিহতের মেয়ে রমেছা বেগম তার মায়ের হত্যাকারী যেইহোক তাদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি দাবি করেন।

সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) মো. আলমগীর আশরাফ বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে পাঠানো হয়েছে।জিঙ্গাসাবাদের জন্য নিহতের ছেলে ও মেয়ের জামাইকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে খুনিদের পায়ের ছাপ সনাক্ত করতে সিআইডির একটি দল আসবে বলেও তিনি জানান।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.