ব্রেকিং নিউজ :

আমৃত্যু সখীপুর-বাসাইলের মানুষের সেবা করতে চাই —– আলহাজ্ব শওকত শিকদার

সাক্ষাতটি তৈরি করেছেন এম সাইফুল ইসলাম শাফলু :
আলহাজ্ব শওকত শিকদার আমৃত্যু সখীপুর-বাসাইলের মানুষের সেবা করার প্রত্যয় নিয়ে ছাত্রজীবন থেকেই তিনি জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের আদর্শে রাজনীতি শুরু করেছেন। তিনি ১৯৬১ সালের ১০ আগষ্ট সখীপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাহারতা গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের শিকদার বংশে জন্ম গ্রহণ করেন। বাবা- মোজাফ্ফর শিকদার, মা- তাম্বিয়াখাতুন। তিনি বিএসসি পর্যন্ত লেখাপড়া করেই শিক্ষা জীবনের ইতি টানেন। ১৯৭৩ সালে পাথারপুর জনতা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিএস পদের নির্বাচনে বিপুল ভোটে তিনি জিএস নির্বাচিত হন। এছাড়া তিনি একই বছর ওই প্রতিষ্ঠানের ছাত্রলীগের সভাপতিও নির্বাচিত হন। ১৯৭৭ সালে শওকত শিকদার উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন এবং একই সময় তিনি জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। এরপর তিনি ১৯৮৪ সালে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য পদ লাভ করেন। ১৯৯০ সাল থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত তিনি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৬ থেকে ১৯৯৯ সাল পর্যন্ত তিনি সখীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সৎ ও নিষ্ঠার সাথে দলের এ গুরুদায়িত্ব পালন করেন। এ সময় তিনি টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সদস্যপদ লাভ করেন। ১৯৯৯ সালে সখীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়ে অদ্যবধি তিনি এ পদের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি শক্ত হাতে সখীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ, কৃষক লীগ,মহিলা লীগ,স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের হাল ধরেছেন। তাঁর সততা ও ন্যায় নিষ্ঠার কারণে দলীয় নেতা কর্মী ও সর্ব সাধারণের কাছে তিনি এক বাক্যে আগামী সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল-০৮ (বাসাইল-সখীপুর) আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলে নৌকার হাল ধরার যোগ্যতা রাখেন ।
এছাড়াও তিনি ১৯৯১ সাল থেকে পরপর তিনবার সখীপুর ইউসিসিএ লিমিটেড এর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তিনি সখীপুর পৌরসভার একজন সফল প্রতিষ্ঠাতা প্রশাসক। তিনি ২০০৯ সাল থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে বিপুল ভোটের ব্যবধানে দুই দুইবার সখীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। বলতে গেলে তিনি একজন সফল বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক, একজন পরিক্ষিত আওয়ামী লীগ নেতা, গরীব দুঃখী মেহনতি মানুষের হৃদয় স্পন্দন তিনি। সময় অসময়,সুখে দুঃখে মানুষ এ নেতাকে কাছে পেয়ে তাদেরই একজন ভাই, তাদেরই একজন বন্ধু, তাদেরই একজন অভিভাবক মনে করে রাস্তাঘাটে জড়িয়ে ধরে কাধে কাধ মিলিয়ে ভালবাসা বিনিময় করার দৃশ্য অহরহ চোখে পড়ে। ঝড় বৃষ্টি উপেক্ষা করে সর্ব সাধারণের পাশে দাঁড়ানোকে নিজের দায়িত্ব ও নৈতিক কাজ মনে করেন আলহাজ্ব শওকত শিকদার। তিনি রাজনীতির পাশাপাশি নিজ গ্রামের শিক্ষার আলো প্রসারিত করতে কাহারতা উচ্চ বিদ্যালয় বিদ্যাপীঠটি গড়ে তুলেন। বর্তমানে তিনি সখীপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক, হতেয়া ডিগ্রি কলেজের গভার্নিং বডির সভাপতি এবং বাংলাদেশ চেয়ারম্যান এসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি’র দায়িত্ব পালন করছেন। তাঁর এ দীর্ঘ রাজনৈতিক পরিক্রমায় সখীপুর উপজেলায় নয় তিনি পাশাপাশি বাসাইল উপজেলায়ও সমানহারে জনপ্রিয়তা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন। আগামি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে টাঙ্গাইল (০৮) সখীপুর-বাসাইল আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশায় তিনি দিনরাত জনগণের পাশে থেকে কাধে কাধ মিলিয়ে কাজ করছেন। তিনি বলছেন, আমি আমৃত্যু সখীপুর-বাসাইলের মানুষের পাশে থেকে সেবা করার প্রত্যয় নিয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে ছাত্র জীবন থেকে রাজনীতি শুরু করেছি । আমি সর্বসাধারণের পাশে সব সময়ই ছিলাম আমৃত্যু থাকবো।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.