টাঙ্গাইলে সবজি বাজার লাগামহীন, বিপাকে নিম্নবিত্তরা

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইলে শীতকালীন আগাম শাকসবজি বাজারে উঠলেও দাম লাগামহীন রয়েছে। অথিরিক্ত দামের কারনে সবজির ধারে কাছে যেতেও ভয় পাচ্ছেন নিম্নবিত্ত মানুষরা। এই সময়ে সবজি বাজারে দাম কম থাকার কথা থাকলেও তিন দিনের টানা বর্ষণের কারণে আমদানি না হওয়ায় সবজির দাম বেড়েছে। কাঁচামরিচ বিক্রি হচ্ছে ১৫০-২০০ টাকা কেজি। বেগুনের দর প্রতিকেজি প্রায় ৮০ টাকা। অন্যান্য শাকসবজিরও দাম বেড়েছে অস্বাভাবিক হারে।

টাঙ্গাইল শহরের পার্কবাজার, ছয়আনী বাজার, সাবালিয়া বাজার, বৌ-বাজার, আমিন বাজার ও বটতলা কাঁচা বাজার সহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, কাঁচা মরিচ ১৫০-২০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এক মাস আগেও মরিচের দাম ছিল ৬০-৭০ টাকা কেজি। বেগুন বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৬০-৮০ টাকা। কয়েক দিন আগেও বেগুন ছিল ৪০-৪৫ টাকা কেজি। ফুলকপি ১০০-১৫০ টাকা, বাঁধাকপি ৫০-৬০ টাকা কেজি ধরে বিক্রি করছেন ব্যবসায়ীরা। লাউ আকার ভেদে ৫০-৮০ টাকা, টমেটো প্রতিকেজি ৮০-১০০ টাকা, শিম প্রতিকেজি ৬০-৮০ টাকা। মূলা ৪০-৫০ টাকা কেজি। চিচিঙ্গা ৬০-৮০ টাকা, পটল ৪৫-৬০ টাকা, করল্লা ৬০-৮০ টাকা, পেঁপে ২৫-৩০ টাকা, কচুরমুখী ২৫-৩০ টাকা, কচুরলতি ৪৫-৬০ টাকা, শসা ৫০-৬০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আলু ২৫-৩০ টাকা, মিষ্টকুমড়া ৬০-৭০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে। বাজারে বিভিন্ন প্রকার শাক বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা কেজি করে।

প্রতি কেজি পিঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা কেজি। রসুন দেশি বিক্রি হচ্ছে ৮০-১০০ টাকা কেজি। আদা বর্তমান ১৪০-১৬০ কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।ক্রেতাদের অভিযোগ, এই সময়ে সবজির যে দাম থাকার কথা এর চেয়ে তুলনামূলক বেশি। বটলতা কাঁচা বাজারে আকুর-টাকুরের বাসিন্দা রুমি খান বলেন, বাজারের কথা আর কি বলবো। প্রতিদিনই জিনিস পত্রের দাম বাড়ছে। আমাদের মতো সামান্য আয়ের মানুষদের এখন বাজার করা কঠিন হয়ে পড়ছে। চালসহ প্রায় সকল জিনিসের দাম ক্রয় ক্ষমতার বাইরে।

একই বাজারের সবজি বিক্রেতা হানিফ মিয়া বলেন, কয়েকদিন আগেও বাজারে সবজির দাম কম ছিল, এখন দাম অনেক চড়া। বাজারে তেমন সবজি এখন পাওয়া যায় না। শীতের আগাম সবজি বাজারে এলেও টানা বৃষ্টির কারণে আমদানি নেই। ফলে বেশি দামে সবজি বিক্রি করতে হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.