‘এইডস প্রতিরোধে ব্যর্থ ট্রাম্প’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :এইচআইভি এইডস প্রতিরোধে ইতোমধ্যে যে কাজ করা হয়েছে তার ভিত্তিতে দিবসটি উদযাপন করেছেন মার্কিন সরকারি কর্মকর্তারা। তবে গ্লোবাল অ্যাডভোকেসি গ্রুপের কর্মী এবং অ্যাক্টিভিস্টরা সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রামের নীতি ও পদ্ধতি ভবিষ্যতে কোনো রকম অগ্রগতিতে বাধা হয়ে দাঁড়াতে পারে।

বিশ্ব এইডস দিবসে ট্রাম্প বলেন, এইডস রোগে আক্রান্ত হয়ে যারা মারা গেছেন, তাদেরকে আমরা সম্মান করি। এ রোগ নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে সাধারণ অগ্রগতি নিয়েই দিবসটি উদযাপন করছি। এইডস রোগ যেন জনসাধারণের স্বাস্থ্যের জন্য হুমকির কারণ হয়ে না দাঁড়ায় সেটা বন্ধের ব্যাপারে পুনরায় প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি।

তবে ৩৮টি অ্যাডভোকেসি সংগঠন গত শুক্রবার মার্কিন কংগ্রেস বরাবর একটি চিঠি পাঠিয়েছে। সেখানে এইডস রোগ নিয়ন্ত্রণে গৃহীত পদক্ষেপের ব্যাপারে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়েছে।

সেখানে আরও উল্লেখ করা হয়েছে ট্রাম্প প্রশাসনের সাম্প্রতিক কার্যক্রম দেখে তাদের সন্দেহ হচ্ছে, ‘মহামারী’ নিয়ন্ত্রণের জন্য লড়াইয়ের ব্যাপারে হোয়াইট হাউসের দেয়া প্রতিশ্রুতি ঠিক থাকবে তো।

তাছাড়া, এইডস আক্রান্তদের মাঝে আটশ মিলিয়ন ডলার অর্থ ব্যয়ের প্রস্তাবিত বাজেটের বিষয়টিও উল্লেখ করা হয়েছে। সেই বাজেটেরও সমালোচনা করা হয়েছে। অ্যাক্টিভিস্টদের দাবি, ‘এইডস প্রতিরোধে ব্যর্থ হয়েছেন ট্রাম্প।’

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এবং অ্যাক্টিভিস্টদের মতে, আন্তর্জাতিকভাবে এইডস প্রতিরোধে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থায়ন একেবারে শৌচনীয় অবস্থায় পৌঁছেছে। ২০০৩ সালে শুরু করে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ আন্তর্জাতিকভাবে ১৩ মিলিয়নের বেশি মানুষের চিকিৎসা দিয়েছেন।

গত ১৫ বছরে ১৩ বিলিয়নের বেশি মানুষের চিকিৎসা দেয়ায় সহায়তা করেছে দেশটি। বর্তমানেও বৈশ্বিক ফান্ডের সবচেয়ে বড় দাতা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.