ব্রেকিং নিউজ :

সখীপুরে প্রধান শিক্ষক নিয়োগ স্থগিত; যিনি ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক তিনিই চাকরি প্রার্থী

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইলের সখীপুরে বড়চওনা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিয়োগ স্থগিত করা হয়েছে। ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. লাল মিয়া ওই পদে থেকেই প্রধান শিক্ষক পদে প্রার্থী হওয়ার কারণে নিয়োগ প্রক্রিয়া প্রভাবিত হতে পারে- এমন অভিযোগে ওই নিয়োগ স্থগিত করা হয়েছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. মফিজুল ইসলাম এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। গত শুক্রবার ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের বড়চওনা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আফাজ উদ্দিন গত ২০১৫ সালের ১ জুন তারিখে অবসরে যাওয়ায় ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের পদটি শুন্য হয়। এরপর থেকে ওই বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক লাল মিয়াকে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দেওয়া হয়। প্রধান শিক্ষক নিয়োগকল্পে বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদ গত বছরের ১২জুলাই ও দ্বিতীয় দফায় ১৪ ডিসেম্বর স্থানীয় ও জাতীয় পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দেয়। ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ ওই পদে ২২জন প্রার্থী এক হাজার টাকার ব্যাংক ড্রাফট জমা দিয়ে আবেদন করেন। ১৬ ফেব্রুয়ারি প্রার্থীদের সাক্ষাতের (ইন্টারভিও) জন্য নির্ধারণ করা হয়। অভিযোগ উঠে, ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দায়িত্ব ছেড়ে না দিয়ে নিজেই নিয়োগ বোর্ডের আয়োজনের কার্যক্রম করে আসছেন। নিয়োগ প্রভাবিত হতে পারে- এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে ওই বিদ্যালয়ের নিয়োগ স্থগিত করা হয়।

সখীপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মফিজুল ইসলাম জানান, প্রধান শিক্ষক পদে প্রার্থী হয়ে তিনিই আবার ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষককের দায়িত্ব পালন করছেন। এ ক্ষেত্রে নিয়োগে প্রভাবিত হতে পারে। এ বিষয়ে প্রার্থীরা মৌখিকভাবে অভিযোগ করায় জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা লায়লা খানম ওই নিয়োগ স্থগিত করে দেন।

কালিহাতী উপজেলার বর্গা-সরিষাআটা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জামাল হোসেন, ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার কৈয়াদি সোনাউল্লাহ উচ্চবিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক গোলাম হোসেন ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে আবেদন করেছেন। তাঁরা জানান, ওই বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক লাল মিয়া তিনি একজন প্রার্থী হয়ে আমাদের কাছে ফোন করে ইন্টারভিওয়ে উপস্থিত থাকার অনুরোধ করেছেন। আবার স্থগিত হওয়ায় বিষয়টিও তিনিই আমাদের ফোন করে জানিয়েছেন। বিধি অনুসারে তা তিনি করতে পারেন না। কারণ তিনিও প্রার্থী আমরাও প্রার্থী।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মো. লাল মিয়া এ বিষয়ে বলেন, নিয়োগ স্থগিত হয়েছে এটা সত্য তবে কী কারণে স্থগিত হয়েছে তা আমার জানা নেই।বড়চওনা উচ্চবিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আবদুল হালিম সরকার বলেন, ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক যেহেতু প্রার্থী হয়েছেন তাই, তিনি আর ওই পদে থাকতে পারবেন না। অন্য একজন সিনিয়র শিক্ষককে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব দিয়ে পরবর্তীতে নিয়োগ কার্যক্রম চালানো হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.