নতুন রেকর্ড বিদ্যুৎ উৎপাদনে

নিউজ ডেস্ক:  ২০০৫-০৬ অর্থবছরে দেশে স্থাপিত বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ছিল ৫ হাজার ২৪৫ মেগাওয়াট আর ওই বছর সর্বোচ্চ বিদ্যুৎ উৎপাদন হয় ৩ হাজার ৭৮২ মেগাওয়াট। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বিদ্যুতের উৎপাদন ক্ষমতা বেড়ে দাড়ায় ১৬ হাজার ৪৬ মেগাওয়াটে। গত ২৫ এপ্রিল অতীতের সব রেকর্ড ভেঙে দেশে ১০ হাজার ১৩৭ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপন্ন হয়।

২০০৯ সালের পূর্বে বিদ্যুতের অভাবে দেশের অর্থনীতি ছিল পর্যুদস্ত, শিল্প, বাণিজ্য ছিল স্থবির এবং লোডশেডিং এর কারণে জনজীবন ছিল অসহনীয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী, সাহসী ও সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়নের ফলে বিদ্যুৎ খাতে গত ৯ বছরে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে। বিদ্যুৎ খাত জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মহাজোট সরকারের ধারাবাহিকতায় বর্তমান সরকারের আমলে উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রেখে আলোর পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে গেছে।

উন্নয়নের এ ধারায় বর্তমানে মোট ১১ হাজার মেগাওয়াট ক্ষমতার ৩১টি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণাধীন আছে, যার মধ্যে প্রায় ৪ হাজার মেগাওয়াট ক্ষমতার ১৫টি বিদ্যুৎকেন্দ্র বেসরকারি খাতের এবং প্রায় ৭ হাজার মেগাওয়াট ক্ষমতার ১৬টি বিদ্যুৎকেন্দ্র সরকারিখাতের রয়েছে। এছাড়া ৩১টি বিদ্যুৎকেন্দ্রের দরপত্র প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, যার মোট ক্ষমতা প্রায় ৫,০০০ মেগাওয়াট। অন্যদিকে প্রায় ৭,০০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার ১১টি বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিকল্পনাধীন আছে। সার্বিকভাবে বর্তমানে ১৫ হাজার মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতার পাশাপাশি আগামী ২০২১ সাল নাগাদ সবার জন্য বিদ্যুৎ নিশ্চিতকল্পে আরও প্রায় ১৭ হাজার ৫০০ মেগাওয়াট উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশ এবং ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত দেশে পরিণত করতে বর্তমান সরকার প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ২০২১ সালের মধ্যে সবার জন্য যৌক্তিক মূল্যে মানসম্মত নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করার প্রত্যয়ে কাজ করে যাচ্ছে সরকার।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.