টাঙ্গাইলে শ্রমিক সংকটে ধান কাটতে পারছেন না অনেক কৃষক

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্কঃ টাঙ্গাইলের ধনবাড়ি উপজেলার মাঠে মাঠে এখন পাকা ধান। তবে শ্রমিক সংকটে ধান কাটতে পারছেন না অনেক কৃষক। এক মণ ধানের দাম মজুরি বাবদ দিয়েও মিলছে না একজন শ্রমিক। শ্রমিক মিললেও জনপ্রতি মজুরি দিতে হচ্ছে ৬৮০ থেকে ৭০০ টাকা। সঙ্গে থাকছে আবার দুই বেলা খাবার। এর ফলে কৃষকের শুধু ধান কাটতেই খরচ পড়ছে মণ প্রতি ৮০০ টাকা। অন্যান্য খরচ (জমি চাষ, সেচ, চারা, সার, কীটনাশক, রোপা শ্রমিক খরচ) তো আছেই। চলতি বোরো মৌসুমে ঝড়, বৃষ্টি, পোকা-মাকড়, রোগ-বালাই নিয়ে কৃষকরা বিপাকে ছিলেন। ধনবাড়ির বাজারে প্রতি মণ ধান বিক্রি হচ্ছে ৬২০ থেকে ৬৫০ টাকায়।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি বোরো মৌসুমে এ উপজেলায় ১০ হাজার ২৫৫ হেক্টর জমিতে বোরো ধান আবাদ হয়েছে। এতে হেক্টর প্রতি কৃষকরা সাত থেকে আট মেট্রিক টন ধান পাবেন বলে আশা করা হচ্ছে। কৃষকরা জানান, কমবেশি সব এলাকায় বোরো ধান কাটা শুরু হয়েছে। তাই শ্রমিকদের চাহিদা বেশি। এ বছর শ্রমিকের মূল্য বেশি থাকায় স্কুল-কলেজের অনেক শিক্ষার্থী ধান কাটার কাজে লেগে পড়েছে। পাইস্কা ইউনিয়নের কয়ড়া গ্রামের কৃষক জয়নাল জানান, তিনি এবার ১০ বিঘা জমিতে বোরো ধানের আবাদ করেছেন। বাজারে ধানের চাহিদা ও বাজার মূল্য অনেক কম থাকায় তাকে লোকসান গুনতে হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে ধনবাড়ি উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের কর্মকর্তা কৃষিবিদ জান্নাতুল ফেরদৌস জানান, এবার বোরো ধানের দাম কম থাকায় তারা কৃষকদের ধান ভালোভাবে শুকিয়ে সংরক্ষণ করার পরামর্শ দিচ্ছেন। যাতে সংরক্ষিত ধান কৃষকরা পরে বিক্রি করে ভালো দাম পান।


নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.