ভূঞাপুরে গ্রামীন রাস্তার বেহাল দশা, ভোগান্তি চরমে

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে বছরের পর বছর রাস্তা বেহাল হয়ে পড়ে থাকলেও সেটি সংস্কার কাজের কোন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি। গত বন্যা ও চলতি বর্ষায় রাস্তার ইট উঠে গিয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এতে করে চরম ভোগান্তি পড়েছে এলাকার মানুষ ও প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সরেজমিনে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কষ্টাপাড়া-খানুরবাড়ি রাস্তার এমন চিত্র দেখা গেছে।

জানা যায়, উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের কষ্টাপাড়া-খানুরবাড়ি রাস্তার সাহাপাড়া হতে ঘোষপাড়া নাটমন্দির, বেপারীপাড়া, খানুরবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গোপালগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, শীলপাড়া ও খানুরবাড়ির যমুনা নদীর ঘাটে যাতায়াতের প্রধান সড়ক এটি। অথচ গত বন্যায় রাস্তা ভেঙে গিয়ে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। রাস্তায় বাকি যে ইট ছিল সেগুলো চলতি বর্ষার বৃষ্টির পানিতে সেগুলো উঠে গিয়ে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। দীর্ঘদিন এভাবে পড়ে থাকলেও সংস্কারের উদ্যোগ তো দুরের কথা খোঁজও নেয়নি উপজেলা এলজিইডি কর্তৃপক্ষ। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোমলমতি শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী।

স্থানীয়রা জানান, রাস্তাটি এমন বেহাল দশায় পড়ে থাকলেও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা উপজেলার কোন কর্মকর্তা খোঁজ নেয়নি। বারবার মৌখিক ও লিখিত আবেদন করলেও কোন কাজ হয়নি। অথচ এলজিইডি কর্তৃপক্ষ ভাল রাস্তার সংস্কার কাজ দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা আত্মস্যাৎ করছে। শুনেছি ৪০দিনের কর্মসূচী কাজে রাস্তায় মাটি ফেলা হয়। কর্মসূচীর প্রকল্পেও যদি এই রাস্তায় মাটি ফেলা হত তাহলে মানুষের ভোগান্তি কম হত। রাস্তায় ছোট ছোট যানবাহনতো দুরের কথা মানুষই হাটতে পারেনা। এবিষয়ে উপজেলা এলজিইডি কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) অনিক সাহা জানান, খুব দ্রুত সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে রাস্তার সংস্কার কাজ করা হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.