ব্রেকিং নিউজ :

দাঁড়িয়ে পানি পানের অপকারিতা

ধর্মীয়ভাবে হোক কিংবা গুরুজনদের পরামর্শ- পানি পান করতে হবে বসে। তবে এর আসল কারণ কি জানেন?

শরীরে পানির উপকারিতা নিয়ে নানান বিষয় জানা থাকলেও দাঁড়িয়ে পানি পানের অপকারিতার বিষয়ে হয়ত অনেকেই জানেন না। দাঁড়িয়ে পানি পানের ক্ষতি কোথায়? চিকিৎসাবিজ্ঞান কী বলে? স্বাস্থ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটের প্রতিবেদন অবলম্বনে সেই কথাই এখানে জানানো হল।

আয়ুর্বেদিক বিজ্ঞানের মত: দাঁড়িয়ে পানি পান করলে পাকস্থলীর দেয়ালে অতিরিক্ত চাপ পড়ে। কারণ পানি অন্যান্য খাবারে মতো হজম প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যায় না, খাদ্যনালী দিয়ে সরাসরি পাকস্থলিতে গিয়ে পৌঁছায়। ফলে দাঁড়িয়ে পানি পান করলে পাকস্থলীর দেয়ালের ক্ষতি হয়। পাশাপাশি দাঁড়িয়ে পানি পান করলে পানির কোনো পুষ্টিগুণ শরীরে শোষণ হয় না।

মূত্রথলির ক্ষতি: দাঁড়িয়ে পান করার ফলে পানির প্রবাহ দ্রুত হয়। চাপ বেশি পড়ে। ফলে মূত্রথলিতে শরীরের দূষিত পদার্থ সরাসারি গিয়ে জমা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যা কিডনি বা বৃক্কের জন্য ক্ষতিকর।

ব্যথা: শারীরিক গড়নকেও প্রভাবিত করতে পারে। কারণ, দাঁড়িয়ে পান করার সময় ওই পানি পুরো শরীরের উপর চাপ প্রয়োগ করে। ফলে হাড়ের জোড়ে ব্যথা হতে পারে।

ফুসফুসের জটিলতা: দাঁড়িয়ে পানি পান করলে শ্বাসনালী ও খাদ্যনালীতে অক্সিজেন সরবরাহ ব্যাহত হয়। আর এভাবে নিয়মিত পান করলে দীর্ঘমেয়াদে ফুসফুস ও হৃদযন্ত্রের ক্ষতি করতে পারে। সঠিক উপায় পানি পানের আদর্শ পদ্ধতি হল বসে চুমুক দিয়ে। এতে পানির প্রবাহ হবে ধীর এবং অল্প। ফলে তা গ্রহণ করতে শরীরে কোনো বাড়তি চাপ পড়বে না। পানির চাপ বেশি হলে স্নায়ুর উপরেও চাপ পড়ে, যা শরীরে আগেভাগে থাকা তরলের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.