ব্রেকিং নিউজ
News Tangail

রাজশাহী নগরীতে লিটনের পক্ষে প্রচারণায় নারীরা

বেশ জোরেশোরেই রাজশাহী নগরীতে চলছে আওয়ামী লীগের প্রার্থী এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটনের প্রচার প্রচারণা। ২০০৮ থেকে ২০১৩ পর্যন্ত রাজশাহী নগরীর অভিভাবক হিসেবে সততার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি। সেই সময় নিজ উদ্যোগে বেশ সুন্দর করে সাজিয়েছিলেন নিজের প্রিয় শহরকে। নগরবাসীর উন্নয়নে এগিয়ে এসেছিলেন তিনি। ২০১৩ নির্বাচনে পরাজয়ের পরও নিজের সাধ্য মতো সামাজিক উন্নয়নে নিজেকে জড়িত রেখেছিলেন লিটন। সেই সূত্র ধরে এবার রাজশাহী নির্বাচনে জনগণের বিশ্বাসের একটি শক্ত জায়গা করে নিয়েছেন সাবেক এই মেয়র।

লিটনের নির্বাচনী ইশতেহার সব সময় ছিল বাস্তবসম্মত ও গঠনমূলক। এজন্য তিনি সবসময় তার ইশতেহার ও প্রতিশ্রুতির সিংহভাগ পূরণ করতে সক্ষম হয়েছেন। বুলবুলের মতো তিনি কখনও চটকদার ইশতেহার প্রস্তুত করে জনগণকে আশাহত করেননি। তাই এবার রাজশাহীতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী লিটনের পক্ষে গণজোয়ার বইছে।

লিটনের প্রচারণায় সক্রিয় আছেন এলাকার নারীরাও। লিটনের স্ত্রী রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার রেনি। তিনি নারীদের জীবনযাত্রার মানোন্নয়নে কাজ করছেন। এগিয়ে এসেছেন নারী শিক্ষা বিস্তারে। লিটন রাজশাহীর নারীদের নিয়ে গড়ে তুলেছিলেন বিভিন্ন ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্পের প্রশিক্ষণ কেন্দ্র। সেখান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়ে বহু নারী তাদের ভাগ্য পরিবর্তন করতে সক্ষম হয়েছেন। তারা অবদান রাখছে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে।

এই প্রেক্ষিতে লিটন তার ইশতেহারে নারী শিক্ষা প্রসার ও কর্মসংস্থানের জন্য গুরুত্ব দিয়েছেন। তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নগরীতে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য আলাদা ব্যবসা কেন্দ্রের ব্যবস্থা করার। তিনি মেয়র হলে নগরীতে একটি নারীবান্ধব পরিবেশ সৃষ্টি হবে বলে আশা করছেন এলাকার নারী ভোটাররা। এছাড়া রাজশাহীর মহানগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি শাহীন আক্তার রেনি সব সময় নিজেকে সংযুক্ত রেখেছেন নারীদের উন্নয়নে। এবার লিটনের প্রচার প্রচারণার কাজে তার স্ত্রী ও কন্যা সহ নারী কর্মীদের সংখ্যা লক্ষ্যণীয়। তারা বিভিন্ন দলে বিভক্ত হয়ে বিভিন্ন ওয়ার্ডে গিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন লিটনের পক্ষে এবং ভোটাররা আশাব্যাঞ্জক সাড়া দিচ্ছেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.