News Tangail

যেভাবে শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন দীপিকা!

বিচ্ছেদের পর বন্ধুত্ব অব্যাহত, বলিউডে এমন জুটি খুব কমই রয়েছে। আর সেই কারণেই এ বিষয়ে ফুল মার্কস পেয়ে যান রণবীর কাপুর এবং দীপিকা পাডুকোন।

রণবীর কাপুরের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে গেলেও, ‘তামাশা’-তে ফের জুটি বাঁধেন বলিউডের এই প্রাক্তন জুটি। সিনেমার শুটিং থেকে প্রমোশন, রণবীর-দীপিকার রসায়ন দেখলে তাদের বন্ধুত্বের বিষয়ে আর নতুন করে কিছু বলতে হয় না। কিন্তু, দীপিকার সঙ্গে রণবীরের সঙ্গে দীপিকার বিচ্ছেদ কেন হয়, জানেন?

বিচ্ছেদের পর ওই সময় বিষয়টি নিয়ে মুখ খোলেন দীপিকা পাডুকোন। তিনি বলেন, রণবীরের সঙ্গে সম্পর্কে থাকাকালীন, অন্য কিছুই মনে ছিল না তার। ওই সময় সম্পর্কের উপরই পুরোপুরি নির্ভর করে ছিলেন তিনি। কিন্তু, দিনের পর দিন ধরে রণবীর নাকি তাকে ঠকিয়েছেন। এক সময় রণবীরকে তিনি হাতেনাতেও ধরেছিলেন বলে দাবি করেন দীপিকা পাডুকোন।

দীপিকার কথায়, সম্পর্ক যাতে ভালভাবে এগিয়ে চলে, তার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন। রণবীরের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে তিনি কখনওই বেরিয়ে আসতে চাননি। কিন্তু সবকিছু সহ্য করেও শেষ পর্যন্ত তিনি সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে পারেননি বলেও আক্ষেপ করেন দীপিকা।

২০০৭ সালে বলিউডে ডেবিউ করেন দীপিকা পাডুকোন। ২০০৮ সালে ‘বাচনা এ হাসিনো’-র সময় রণবীর কাপুরের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান দীপিকা। কিন্তু, ‘আজব প্রেম কি গজব কাহানি’-র সময় থেকে ক্যাটরিনার সঙ্গে নতুন করে সম্পর্কের সূত্রপাত হয় রণবীর কাপুরের। ফলে, দীপিকার সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় রণবীরের।

এ বিষয়ে একটি ম্যাগাজিনের সাক্ষাতকারে দীপিকা বলেন, সেক্স তার কাছে শুধু মাত্র শরীরের চাহিদা নয়। মন প্রাণ দিয়ে তিনি ভালবেসেছিলেন রণবীরকে। আর সেই কারণেই এই সম্পর্কের উপর তার আত্মনির্ভরতা গড়ে উঠেছিল বলেও মন্তব্য করে দীপিকা

কিন্তু, তার সঙ্গে সম্পর্কে থাকাকালীন রণবীর তাকে দিনের পর দিন ঠকিয়েছেন। রণবীরকে হাতেনাতে ধরার পরও তাকে প্রথমে ক্ষমা করে দিয়েছিলেন। কিন্তু, বিষয়টি যখন রণবীরের অভ্যাসে পরিণত হয়, তখন তিনি মেনে নিতে পারেননি এবং সম্পর্ক ছেড়ে বেরিয়ে আসেন বলেও জানান দীপিকা পাডুকোন।

প্রসঙ্গত, এ বিষয়ে দীপিকা আরও বলেন, রণবীরের সঙ্গে বিচ্ছেদ হওয়ায় তিনি খুশি। শুধু তাই নয়, বর্তমানে তার জীবনে যিনি রয়েছেন, তিনি রণবীরের তুলনায় শত গুনে ভাল বলেও মন্তব্য করেন দীপিকা।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.