ব্রেকিং নিউজ
News Tangail

টাঙ্গাইলে ৯ আগস্ট থেকে স্মার্ট কার্ডে বিতরণ শুরু

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: আগামী ৯ আগস্ট থেকে টাঙ্গাইলে শুরু হচ্ছে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কার্যক্রম। প্রথম পর্যায়ে টাঙ্গাইল পৌরসভার ১৮টি ওর্য়াড এবং সদর উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে এ স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, টাঙ্গাইল পৌরসভা ও ১২টি ইউনিয়ন মিলিয়ে মোট ভোটার ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৮০। পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৯৬ হাজার ৪০১ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ৯৩ হাজার ৭৫৪ জন।

সূত্র আরো জানায়, ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৮০ জন ভোটারের মধ্যে ৩ লাখ ৬৪ হাজার ২২০ জন ভোটার স্মার্ট কার্ড পাবেন। এর জন্য টাঙ্গাইল পৌরসভায় ৬টি ভেনু ও ১২টি ইউপিতে ১২টি ভেনু করা হবে। শিউল অনুযায়ী সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত এই স্মার্ট কাড দেয়া হবে। প্রতিটি ভেনুতে ৩টি টিম কাজ করবে। প্রত্যেককেই নিদিষ্ট স্থান থেকে স্মার্ট কাড নিতে হবে।

সূত্র মতে, আগামী ৯ থেকে ১৬ আগস্ট পৌর এলাকার ১, ২ ও ৩নং ওয়ার্ড, ১৭ থেকে থেকে ২৬ আগস্ট ৪,৫, ও ৬ নং ওয়ার্ড, ২৮ থেকে ৩১ আগস্ট ৭, ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৭ সেপ্টেম্বর ১০,১১ ও ১২ নং ওর্য়াড, ৮ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ সেপ্টেম্বর ১৩, ১৪, ১৫ নং ওয়ার্ডে, ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর ১৬, ১৭ ও ১৮ নং ওয়ার্ডে ভোটারদের মাঝে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে।

বাঘিল ইউনিয়ন পরিষদে ২৩ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর, দাইন্যা ইউনিয়নে ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ৬ অক্টোবর, গালা ইউনিয়ন পরিষদে ৮ আগস্ট থেকে ১৩ আগস্ট, ঘারিন্দা ইউনিয়ন পরিষদে ১৫ অক্টোবর থেকে ২১ অক্টোবর, হুগড়া ইউনিয়ন পরিষদে ২৩ অক্টোবর থেকে ২৯ অক্টোবর, কাকুয়া ইউনিয়ন পরিষদে ৩০ অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বর, করটিয়া ইউনিয়ন পরিষদে ৭ নভেম্বর থেকে ১৬ নভেম্বর, কাতুলী ইউনিয়ন পরিষদে ১৮ নভেম্বর থেকে ২৪ নভেম্বর, মগড়া ইউনিয়ন পরিষদে ২৬ নভেম্বর থেকে ২ ডিসেম্বর, মাহমুদনগর ইউনিয়ন পরিষদে ৪ ডিসেম্বর থেকে ৭ ডিসেম্বর, পোড়াবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদে ৯ ডিসেম্বর থেকে ১৩ ডিসেম্বর, ছিলিমপুর ইউনিয়ন পরিষদে ১৭ ডিসেম্বর থেকে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভোটারদের মাঝে স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে।

নতুন এ স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্রের (এনআইডি) জন্য ভোটারদের নতুন করে দুটি তথ্য নির্বাচন কমিশনকে দিতে হবে। এতে সব ভোটারদের ১০ আঙুলের ছাপ ও চোখের মণির ছবি দিতে হবে যেটা কার্ডের তথ্যভাণ্ডারে সংরক্ষিত হবে। নতুন এই দুটি তথ্য ছাড়াও ভোটার হওয়ার সময় দেওয়া আরও বেশ কিছু তথ্যও সংরক্ষিত থাকবে। এগুলো হলো ব্যক্তির নাম, পিতার নাম, মায়ের নাম, স্থায়ী ঠিকানা, বর্তমান ঠিকানা, পেশা, বয়স, বৈবাহিক অবস্থা, জন্ম তারিখ, রক্তের গ্রুপ, জন্ম নিবন্ধন সনদ, লিঙ্গ, জন্মস্থান, শিক্ষাগত যোগ্যতা, দৃশ্যমান শনাক্তকরণ চিহ্ন ও ধর্ম।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন অফিসার তাজুল ইসলাম পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, আগামী ৯ আগস্ট থেকে টাঙ্গাইল সদর উপজেলায় জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে। এ লক্ষ্যে আমরা মাইকিং করেছি। তবে যদি কারও স্মাট কার্ডে ভুল থাকে তাহলে আবেদনের প্রেক্ষিতে তারা পুনরায় নির্ভুল স্মার্ট কাড পাবেন।

তিনি আরো বলেন, আমরা স্মার্ট কার্ড বিতরণের শিডিউল করেছি। সে অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময়ে ইউনিয়ন ও ওর্য়াডে স্থাপিত ভেনুতে স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে। স্মার্ট কার্ড বিতরণের সময় প্রত্যেক পরিচয়পত্র বহনকারীকে তার জাতীয় পরিচয়পত্রের আসল কপি সঙ্গে নিয়ে আসতে হবে। এগুলো জমা দিয়েই ভোটাদের স্মার্ট কার্ড নিতে হবে। স্মার্ট কার্ড নেয়ার সময় চোখের আইরিশ এবং ১০টি আগুলের ছাপ দিতে হবে। প্রতিজনকে এই পদ্ধতির মাধ্যমে জাতীয় পরিচয়পত্র স্মার্ট কার্ড দেয়া হবে। কেউ যদি নিদিষ্ট সময়ে স্মার্ট কার্ড নিতে না পারে তাহলে তারা জেলা নির্বাচন অফিস থেতে নিতে পারবেন। এ উপলক্ষে আগামী ৮ আগস্ট একটি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। ওই দিন টাঙ্গাইলে এ স্মার্ট কার্ড বিতরণের উদ্বোধন করা হবে। পরদিন ৯ আগস্ট স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা হবে।

নির্বাচনী এ কর্মকর্তা আরো বলেন, ২০০৮ সাল থেকে শুরু করে ২০১২ সাল পর্যন্ত যারা ভোটার হয়েছেন তারাই শুরু এ স্মার্ট কাড পাবেন। ২০১৪ সাল থেকে বর্তমান পর্যন্ত যারা রয়েছেন তারা এখন এই কার্ড পাবেন না। তবে দ্রুত সময়ের মধ্যে তারাও স্মার্ট কার্ড পাবেন। আগামী ২৩ ডিসেম্বর সদর উপজেলায় ভোটারদের মাঝে এ স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্ডক্রম শেষ হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.