ব্রেকিং নিউজ
News Tangail

কালিহাতীতে গ্রামীণ অবকাঠামোর নজির বিহীন উন্নয়ন

শুভ্র মজুমদার,কালিহাতী প্রতিনিধি: টিআর কাবিখা ও কাবিটা প্রকল্প বাস্তবায়নে গ্রামীণ অবকাঠামোর নজির বিহীন উন্নয়নে দেশের দৃষ্টান্ত এখন টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলা। কালিহাতীতে বরাদ্দকৃত টিআর কাবিখা ও কাবিটা কর্মসূচির আওতায় ব্যাপক গ্রামীণ অবকাঠামোর উন্নয়ন সাধিত ও উন্নয়ন কাজে বরাদ্দকৃত সকল অর্থ ব্যয় করা হয়েছে।

উন্নয়নের গণতন্ত্র, শেখ হাসিনার মূলমন্ত্রে, সব মানুষের উন্নয়নের লক্ষ্যে ২০০৮ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার “ দিন বদলের সনদ” হিসেবে রূপকল্প-২০২১ উপস্থাপন করেছিলেন দেশের জনগণের কাছে। ২০০৯ থেকে বাস্তবে দেশের দিন বদলে যেতে শুরু করেছে। এরই লক্ষ্যে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের পাশাপাশি কালিহাতী উপজেলার জনসাধারণের জীবন মান বিনির্মাণে, গ্রামীণ যোগাযোগ, গ্রামীণ অবকাঠামো ব্যবস্থার মান উন্নয়ন, উপজেলার সামাজিক নিরাপত্তায় বিভিন্ন কর্মসূচি ব্যাস্তবায়ন, টিআর কাবিখা যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে ব্রিজ,কালভার্ট নির্মাণ, সোলারসহ বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন, গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার(কাবিটা/কাবিখা)’র বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নে দৃশ্যপট উন্নয়নে পাল্টে যাচ্ছে কালিহাতী উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চল। ক্ষুদা, দারিদ্রপীড়িত, অসহায় প্রত্যন্ত পল্লীর জনসাধারনকে রুগ্ন প্রতিচ্ছায়া থেকে বের করে আনতে কালিহাতী উপজেলা দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর সরকারের রূপকল্প বাস্তবায়নে নিবেদিত অন্যতম ভূমিকা পালন করছে। উন্নত গ্রামের পাশাপাশি ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করছে এ উপজেলার দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর। স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোজহারুল ইসলাম তালুকদার, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুছাম্মৎ শাহীনা আক্তার ও দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আল আমিনের অক্লান্ত পরিশ্রমে মধ্যদিয়ে ২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরের টিআর কাবিখা ও কাবিটা প্রকল্প সফলভাবে বাস্তবায়ন হয়েছে।

দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আল আমিন জানান, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের উপজেলা চেয়ারম্যানের অনুকুলে সাধারন বরাদ্দের ১ম পর্যায় কাবিটা ২৭ লাখ ৫৩ হাজার ১৬ টাকা ৩৪ পয়সা ১৫ টি রাস্তার প্রকল্প, সোলার ২৬ লাখ ৯৮ হাজার ৫৪ টাকা ১ পয়সা ১২০ টি হোম সোলার।

২য় পর্যায় কাবিখা (চাল) ৭০.৩৫ মেট্রিকটন ১৫ টি রাস্তার প্রকল্প, সোলার ২৬ লাখ ৯৬ হাজার ৬৯ টাকা ৪৮ পয়সা ১০১টি হোম সোলার ও ৬ টি ষ্ট্রিট লাইট স্থাপন করা হয়েছে। সাধারন টিআর-১ম পর্যায় টিআর ১৯ লাখ ৪৩ হাজার ২ শত ৬৯ টাকা ৫৫ পয়সা ২৪টি রাস্তা, ধর্মীয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুদান, ১৯ লাখ ৪ হাজার ৪ শত ৪ টাকা ১৬ পয়সা ৮৫ টি হোম সোলার বিতরণ। ২য় পর্যায় টিআর ১৯ লাখ ৪১ হাজার ৯শত ৭৯ টাকা ২৮ পয়সা ২২টি রাস্তা, ধর্মীয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুদান, হোম সোলার ১৯ লাখ ৩ হাজার ১ শত ৩৯ টাকা ৬৯ পয়সা ৮৫টি হোম সোলার ও ৪টি ষ্ট্রিট লাইট স্থাপন।

স্থানীয় সংসদ সদস্য (এমপি)’র অনুকুলে বিশেষ বরাদ্দ- ১ম পর্যায়ে কাবিটা ৫৭ লাখ ৬২ হাজার ৯শত ৯৮টাকা ৪০ পয়সা ২৪টি রাস্তার প্রকল্প,সোলার- ৫৬ লাখ ৪৭ হাজার ৭শত ৩৮টাকা ৪৩পয়সা ৯৯টি ষ্ট্রিট লাইট স্থাপন। ২য় পর্যায় কাবিখা(চাল) ১৪৭.৩৮৬মেট্রিকটন ১৬টি রাস্তার প্রকল্প, সোলার-৫৬ লাখ ৪৭ হাজার ৭শত ৩৮টাকা ৪৩পয়সা ৯৯টি ষ্ট্রিট লাইট স্থাপন। বিশেষ টিআর-১ম পর্যায় টিআর ৪৮ লাখ ৬৯ হাজার ২শত ৩টাকা ৩২পয়সা ৮২টি ধর্মীয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুদান, সোলার-৪৭ লাখ ৭১হাজার ৮শত ১৯টাকা ২৬পয়সা ২৩৭টি হোম সোলার বিতরন। ২য় পর্যায়ে টিআর-৪৮ লাখ ৬৯হাজার ২শত ৩টাকা ৩২পয়সা ৮৭টি ধর্মীয়, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনুদান, সোলার-৪৭ লাখ ৭১হাজার ৮শত ১৯টাকা ২৬পয়সা ২৩৭টি হোম সোলার ও ১৯টি ষ্ট্রিট লাইন স্থাপনসহ ৪০দিনের কর্মসূচি সঠিক ও সুন্দর ভাবে বাস্তবায়ন হয়েছে। এ প্রকল্প গুলোর মাধ্যমে জনগণের জীবন মান উন্নত করতে কাজ করছে এ উপজেলার দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.