ব্রেকিং নিউজ
News Tangail

ভাতিজার সাথে প্রেমের সর্ম্পক অতপর স্বামীকে…..

ভাতিজা হৃদয় সাথে প্রায় চার বছর প্রেমের সর্ম্পকের পর শানজিদা নামের ওই নারী স্বামীকে তালাক দিয়ে সোমবার (০৬ আগস্ট) প্রেমিকের বাড়ির সামনে অবস্থান নিয়েছেন ।আড়াই বছরের এক ছেলে রেখে যশোরের ঘোপ সেন্টাল রোডে বিয়ের দাবিতে স্বামীর ভাতিজার বাড়িতে অনশন করেছে চাচি শানজিদা আক্তার মৌ (১৯)।

শানজিদা একই এলাকার মাহাবুর সরদারের ছেলে বাপ্পীর স্ত্রী। ভাতিজার সাথে প্রায় চার বছর অবৈধ সর্ম্পকের পর স্বামীকে তালাক দিয়ে শানজিদা সোমবার প্রেমিক ভাতিজার বাড়ির সামনে অবস্থা ন নিয়েছে।শানজিদা জানান, দীর্ঘদিন ধরে তার স্বামীর চাচতো ভাই স্বপন ঠিকাদারের ছেলে ডাঃ আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের অনার্সের শিক্ষার্থী হৃদয়ের সাথে তিনি প্রেমজ সর্ম্পকে জড়িয়ে পড়েন।

বিয়ের আশ্বাস দিয়ে হৃদয় তার সাথে একাধিক বার দৈহিক সর্ম্পকও স্থাপন করেছে। বিষয়টি হৃদয়ের বাবা ও স্বপনসহ তার পরিবারের সবাই জানতেন।হৃদয় ও তার বাবার পরামর্শে তিনি তার স্বামী বাপ্পীকে তালাকও দিয়েছে। তবে তালাক দেওয়ার পর তার প্রেমিক হৃদয় তাকে বিয়ে করতে আর রাজি হচ্ছেন না। বিয়ের দাবি নিয়ে হৃদয়ের বাড়িতে গেলে হৃদয়ের বাবা স্বপন ও তার মা সেলিনা বেগম তাকে শারিরীকভাবে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে বের করে দেয়।

শানজিদা বলেন, হৃদয় আমার সাথে প্রেমজ সর্ম্পক করে সংসার ভেঙ্গেছে। হৃদয়কে পাওয়ার জন্য স্বামীকে তালাক দিয়ে আমি রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছি। হৃদয়ের সাথে আমাকে বিয়ে দেওয়ার জন্য আমি জোর দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে, ঘটনাটি ধামাচাপা দিয়ে হৃদয়ের বাবা স্বপন ঠিকাদার প্রভাবশালীদের কাছে ধর্না দিচ্ছেন বলে জানা গেছে।এলাকাবাসী এরকম চাঞ্চলকর ঘটনায় খুবই বিরক্ত প্রকাশ করে বলেন সামাজিক পরিবেশ নষ্ট করছে, এতে করে স্কুল কলেজের ছেলে মেয়েদের মানসিক এবং বাস্তবিক চিন্তাভাবনা বিনষ্ট হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.