ব্রেকিং নিউজ :
News Tangail

বাংলাদেশের সামনে পাঁচ বছর পর পাকিস্তান

র‌্যাংকিয়ের পার্থক্যটা যে কখনো কখনো মাঠে প্রতিফলিত হয় না, সদ্য সমাপ্ত এশিয়ান গেমসে তা দেখিয়েছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। জাকার্তায় বাংলাদেশ হারিয়ে দিয়েছে প্রায় ৯৬ ধাপ সামনে থাকা কাতারকে।

একই আসরে পাকিস্তান হারিয়েছে ৪০ ধাপ উপরে থাকা নেপালকে। মাঠের পারফরম্যান্স দিয়ে র‌্যাংকিংকে তুড়ি মেরে উড়িয়ে দেয়ার ধারাটা পাকিস্তান অব্যাহত রেখেছে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপেও। ঢাকায়ও তারা হারিয়েছে হিমালয়ের কন্যাকে।

ফিফা র‌্যাংকিয়ের তলানীর দিকে থাকা বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে ব্যবধান মাত্র ৭ ধাপ। দুই দলের মাঠের লড়াইটা যে কঠিন হবে তা বোঝাই যায়। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া দ্বাদশ সাফ সুজুকি কাপের তৃতীয় দিনে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের ম্যাচটিতে ধুন্ধমার লড়াই হবে বলেই মনে করছেন ফুটবলবোদ্ধারা।

ফুটবলে অনেক দিন মুখোমুখি হয় না বাংলাদেশ ও পাকিস্তান। পাক্কা পাঁচ বছর। ২০১৩ সালের ৫ সেপ্টেম্বর নেপালের কাঠমান্ডুর হালচুক আর্মড পুলিশ ফোর্স স্টেডিয়ামে সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের গ্রুপ ম্যাচে সর্বশেষ দেখা হয়েছিল দুই দেশের। সেমিতে ওঠার জন্য মাস্ট উইন ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছিল ২-১ গোলে।

ওই হারের পর পাকিস্তানকে আর পায়নি বাংলাদেশ। ২০১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে পাকিস্তান অংশ নেয়টি ফুটবলে নিষিদ্ধ থাকায়। ফিফা সাসপেনশনে উঠে যাওয়ার পর চলমান সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফিরেছে দেশটির জাতীয় দল।

তিন বছরের মতো ফুটবলের বাইরে থাকা একটি দেশ আন্তর্জাতিক আসরে ফিরে ‘ডাব্বা’ মারবে এমনটিই ধারনা ছিল সবার; কিন্তু ৫ মাস আগে হোর্হে আন্তোনিও নোগেইরা নামের এক কোচের হাতে পড়ে বদলে গেছে পাকিস্তানের ফুটবল। ১৬ দিনের ব্যবধানে নেপালকে ২ বার হারিয়ে নিজেদের শক্তিমত্তার পরিচয়ও দিয়েছে তারা।

বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ২-০ গোলে হারালেও দলের ইংলিশ কোচ জেমি ডে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ম্যাচ নিয়ে বেশ সতর্ক, ‘ভুটান ও আর পাকিস্তান এক কথা নয়। আমি ওদের খেলা দেখেছি। পাকিস্তান অনেক শক্তিশালী। আমাদের জন্য এটা কঠিন ম্যাচই হবে।’ দুই দলই জয় দিয়ে শুরু করেছে সাফ সুজুকি কাপ। দুই দলেরই সুযোগ দ্বিতীয় ম্যাচ জিতে সেমিফাইনাল নিশ্চিত করার। ড্র হলেও সম্ভাবনা টিকে থাকবে। হারলে অনিশ্চিত হবে শেষ চারে ওঠা।

পাকিস্তানের কোচ হোর্হে আন্তোনিও নোগেইরা যেমন এ ম্যাচকে মনে করছেন গ্রুপ পর্বের সেমিফাইনাল ‘সেমিফাইনালে ওঠার জন্য দুই দলের জন্যই এ ম্যাচটি গুরুত্বপূর্ণ। সবাই মাস্ট উইন অবস্থায় আছি। হোম গ্রাউন্ডে খেলা বলে বাংলাদেশ একটু সুবিধাই পাবে। আমরা জয়ের ধারা অব্যাহত রাখার চেষ্টা করবো।’

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের ম্যাচটি শুরু হবে সন্ধ্যা ৭টায়। দিনের প্রথম ম্যাচে বিকাল ৪টায় মুখোমুখি হবে নেপাল ও ভুটান। ম্যাচ দুটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বাংলাদেশ টেলিভিশন ও চ্যানেল নাইন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.