News Tangail

টাঙ্গাইলে বাথরুমের ভিতর মুখ বাধা অবস্থায় গৃহবধূর অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার

এম সাইফুল ইসলাম শাফলু: টাঙ্গাইলের সখীপুরে নাজমা খাতুন (৪৫) নামের এক গৃহবধূ খুন হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সখীপুর পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ডের প্রতিমাবংকী করটিয়াপাড়া এলাকার নিজ বাড়ির বাথরুমের ভিতর মুখ বাধা অবস্থায় ওই গৃহবধূর অর্ধ গলিত লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। নিহত ওই গৃহবধূ ওই ওয়ার্ডের মৃত নসর আলীর স্ত্রী। শুক্রবার রাতেই নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা দুই সন্তানেন জননী নাজমা খাতুন একা ওই বাড়িতে থাকতেন। বড় ছেলে নাজমুল হোসেন বৈশাখী টিভির এমডির গাড়ির চালক ছোট ভাই আজিজুল ঢাকাতেই দর্জির কাজ করেন। ওরা দুই ভাই মহাখালীর ওয়ারল্সে গেট এলাকায় বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন। সর্বশেষ গত ৩০ সেপ্টেম্বর ছেলেদের সাথে মোবাইল ফোনে মায়ের কথা হয়। শুক্রববার সন্ধ্যায় ওই বাড়ি থেকে র্দুগন্ধ ছড়িয়ে পড়লে প্রতিবেশীরা বাথরুমের ভেতরে পড়ে থাকা অর্ধ গলিত অবস্থায় ওই নারীর লাশ দেখতে পান। পরে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
নিহতের বড় ছেলে নাজমুল হোসেন জানান, আমরা দুই ভাই ঢাকায় দুইটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করি। সেজন্য মাকে দেখাশুনার কেউ নেই। তিনি বাড়িতে একা থাকতেন। সর্বশেষ গত ৩০ সেপ্টেম্বর রোববার আমার সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয়েছিল। এরপর থেকে মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।
সখীপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. বদিউজ্জামান জানান, ওই গৃহবধূর মুখ ওড়না দিয়ে বাধা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ওই গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে এবং লাশের গায়ে পচন ধরেছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.