ব্রেকিং নিউজ :
News Tangail

খালেদা-তারেক বাদ, নির্বাচনের আগ মুহূর্তে ৪ ভাগে বিভক্ত বিএনপি

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-১ আসনে বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মোহাম্মদ সরোয়ার হোসেনকে মনোনয়ন না দিয়ে জামায়াত নেতার দেলোয়ার হোসেন সাঈদীর ছেলে শামীম সাঈদীকে মনোনয়ন দেয়ার পর থেকেই বরিশাল বিএনপি চার ভাগে বিভক্ত হয়ে গিয়েছে।

প্রথম পক্ষ বলছে, বিএনপির পক্ষে গণ জোয়ার সৃষ্টি করতে। দ্বিতীয় পক্ষ বলছে, বরিশাল বিভাগে জামায়াতের কোনো প্রার্থীর অবস্থান হতে পারে না। যদি জামায়াতের কোনো আসন বরিশালে থাকে, তবে বিএনপির সঙ্গে থাকার কোনো প্রশ্নই আসে না। তৃতীয় অপরপক্ষ বলছে, খালেদা-তারেককে বাদ দিয়ে ফখরুল-মওদুদের নেতৃত্বে নির্বাচনে গিয়ে তাদের কাউকে প্রধানমন্ত্রী বানানোর কোনো মানেই হয় না। অপরদিকে চতুর্থ পক্ষ বলছে, ঐক্যফ্রন্টের কিছু নেতা বরিশাল থেকে নমিনেশন পাওয়ায় বিএনপির কোনো নেতাই তাদের পক্ষে কাজ করবে না।

বিএনপির এ দলীয় কোন্দল নিয়ে কথা হয় রাজনৈতিক বিশ্লেষক, শিক্ষক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ডা: আব্দুন নুন তুষারের সঙ্গে। তিনি বলেন, বর্তমান প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে বোঝাই যাচ্ছে বিএনপি নানা ভাবে দ্বিখণ্ডিত হয়ে গিয়েছে। নির্বাচনের আগে তাদের এমন দ্বিখণ্ডিত দলের পক্ষে মোটেই সমীচীন নয়।

এদিকে নতুন করে গুঞ্জন উঠেছে, সুযোগ থাকার পরেও রাজনৈতিক বুদ্ধি খাটিয়ে খালেদা জিয়াকে কারাগার থেকে বের করার জন্য কোনো তাগিদ দেয় নি সিনিয়র আইনজীবী মওদুদ আহমেদ। এ জন্য তাকে একাধিকবার খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের কাছ থেকে বকাও খেতে হয়েছিলো, কিন্তু তিনি তার রাজনীতিতে অটল ছিলেন। যদিও মওদুদ আহমেদ যতো গেম খেলেছেন, পেছন থেকে তার সমস্ত কলকাঠি নেড়েছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তাদের পরিকল্পনা মাফিক বর্তমানে খালেদা-তারেক মাইনাস হয়ে দলের প্রধান হর্তাকর্তার দাবিদার হিসেবে মির্জা ফখরুলের বদনখানি দৃশ্যমান হয়েছে।

দলের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় দুঃখপ্রকাশ করে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বেগম খালেদা জিয়ার জন্য কষ্ট লাগছে, তিনি বের হতে পারছেন না। তার অবর্তমানে আমাকেই দলের প্রধান হিসেবে কাজ করতে হচ্ছে। হয়তো ক্ষমতায় গেলে মন না চাইলেও আমাকেই প্রধানমন্ত্রী হতে হবে। এসময়ে দলের উচিত আমার নেতৃত্ব মেনে নিয়ে সংঘবদ্ধ হয়ে কাজ করা।

বিএনপির বর্তমান পরিস্থিতি উদ্বেগজনক বলে আখ্যায়িত করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক এ আরাফত বলেন, রাজনৈতিক মাঠে বিএনপি বর্তমানে সংকটময় পরিস্থিতিতে আছে। সংঘবদ্ধ হওয়ার সময়ে যদি এভাবে ভেঙে যায়, তা ভোটের রাজনীতির জন্য কখনোই কল্যাণকর হবে না। অপরদিকে খালেদা জিয়াকে বাদ দিয়ে যদি বিএনপি ক্ষমতায় আশার চিন্তা করে। তা হবে বিএনপির জন্য আকাশকুসুম স্বপ্ন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.