ব্রেকিং নিউজ :

জাতিসংঘ প্রস্তুত দেশের নতুন সরকারের সাথে কাজ করতে

জাতিসংঘ পুরো বিশ্বের জাতি সমূহের একটি সংগঠন। এই সংগঠনটির লক্ষ্য আন্তর্জাতিক অঙ্গনে আইন, নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক উন্নয়ন, সামাজিক অগ্রগতি এবং মানবাধিকার বিষয়ে পারষ্পরিক সহযোগিতার পরিবেশ সৃষ্টি করা। পৃথিবীর স্বাধীন রাষ্ট্র নিয়ে এই সংগঠনটি গঠিত। ২০১৬ সালের তথ্য অনুযায়ী জাতিসংঘের সদস্য সংখ্যা ১৯৩টি দেশ। এর ভিতর বাংলাদেশও এই সংগঠনটির সদস্য। স্বাধীনতা লাভের পর ১৯৭৪ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ জাতিসংঘের সদস্য পদ লাভ করে। আন্তর্জাতিক এই সংগঠনটিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সর্বপ্রথম অধিবেশনে অংশগ্রহণ করে বাংলায় বক্তৃতা দেন। সদস্য লাভের পর থেকেই দেশের সুসময়, দুঃসময়ে পাশে থেকেছে জাতিসংঘ।

বাংলাদেশের সঙ্গে জাতিসংঘের সম্পর্কের সূচনা হয় ১৯৭১ সালে। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ শুধু একটি মুক্তি আন্দোলন নয়, এটি একটি মৌলিক মানবাধিকার লঙ্ঘনের আন্দোলন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে জাতিসংঘ মূলত যুক্ত হয়েছিল: মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে অবস্থান গ্রহণ; এবং শরণার্থীদের সহায়তা দান।

আন্তর্জাতিক এই সংগঠনটি দেশের নতুন সরকারের সাথে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) অর্জন, সুশাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা এবং সরকারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির প্রশ্নে বাংলাদেশের নতুন সরকারের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত জাতিসংঘ। জাতিসংঘের বাংলাদেশ অফিসের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেয়া এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও জানানো হয় যে জাতিসংঘ শুধু সরকারের সাথেই নয় জাতীয় অংশীদারদের সঙ্গে কাজ করতে প্রস্তুত তারা। সর্বজনীন মানবাধিকার চুক্তি বাস্তবায়নে বাংলাদেশ তার প্রতিশ্রুতি রাখবে বলেও আশা প্রকাশ করেছে বৈশ্বিক এ সংস্থাটি। জাতিসংঘের ২০৩০ সালের বৈশ্বিক উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার অংশ হিসেবে এসডিজির ১৬ দফা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে একটি শান্তিপূর্ণ, অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ, সুশাসন ও আইনের শাসন বাস্তবায়ন প্রচেষ্টার জন্য বাংলাদেশের নতুন নির্বাচিত সরকারের সঙ্গে কাজ করবে জাতিসংঘ।

আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বিশ্ব মানচিত্রে বাংলাদেশ একটি অন্যতম উদীয়মান রাষ্ট্রে পরিণত হয়েছে। রূপকল্প- ২১ ও রূপকল্প- ৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশকে করেছে উন্নত, কাজ করছে আধুনিকায়নে। অবদান রেখেছে দেশের নারী শিক্ষার প্রসারে। দেশের সার্বিক উন্নতির জন্য বাংলাদেশ আজ দিকে দিকে প্রশংসিত। এজন্যই জাতিসংঘ দেশের নতুন সরকার তথা টানা তৃতীয়বার জয়ী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের সাথে কাজ করতে প্রস্তুত হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.