ব্রেকিং নিউজ
News Tangail

জনরায়কে উপেক্ষা করে পুনঃনির্বাচনে বিএনপির দাবি অবৈধভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার বহিঃপ্রকাশ 

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হতাশাজনক পরাজয়ের পর নতুন করে নির্বাচনের দাবি জানিয়ে বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্ট জনরায়ের প্রতি অশ্রদ্ধা জ্ঞাপন করছে বলে করেন বিশেষজ্ঞরা।  এদিকে, শুধুমাত্র ক্ষমতায় বসার জন্য অসাংবিধানিক এবং অযৌক্তিক দাবি উত্থাপন করে বিএনপি শুধু সরকার নয় বরং ১৬ কোটি মানুষকে অবজ্ঞা ও অবহেলা করছে বলে মনে করছেন তারা।

জানা যায়, একাদশ সংসদ নির্বাচনে অভাবনীয় ফলাফলে হতাশ হয়ে বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্ট পুনঃনির্বাচনে দাবি জানিয়ে বিভিন্ন সময়ে বক্তব্য দিয়েছে। অংশগ্রহণমূলক একটি নির্বাচনে যখন আওয়ামী লীগ বিজয়ী হয়ে সরকার গঠন করে বিভিন্ন রাষ্ট্রের প্রশংসার ভাসছে, ঠিক তখন বিএনপি ও ঐক্যফ্রন্টের পুনঃনির্বাচনের দাবিকে ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই বিবেচনা করছেন বিশেষজ্ঞরা।

তাদের এই দাবিকে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র এবং জনগণকে অবহেলার শামিল বলে আখ্যায়িত করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক এ আরাফাত বলেন, বিএনপি তথা ঐক্যফ্রন্ট জনগণের রায়ে প্রত্যাখ্যাত হয়ে পুনঃনির্বাচনের দাবি নিয়ে সারাদেশে বিদ্বেষ ছড়ানোর পরিকল্পনা করছে।  নির্বাচনের শেষ সময় পর্যন্ত ঐক্যফ্রন্ট বিজয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী ছিলো। কিন্তু তখন নির্বাচন নিয়ে তাদের কোন রকম প্রশ্ন ছিলো না।  যখনই রায় তাদের বিপক্ষে গেল তখনই তারা পরাজয়ের বদলা নিতে নানা রকম মিথ্যাচার ও বিভ্রান্তি ছড়াতে শুরু করে।  জনগণ যেখানে তাদের মূল্যবান রায় দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করেছে, সেখানে বিএনপি-জামায়াতের এজেন্টরা জনরায়কে উপেক্ষা করে জনগণকে অপমান-অবহেলা করছে। এতেই বোঝা যায়, বিএনপি-জামায়াত তথা ঐক্যফ্রন্ট কতটা জনবিচ্ছিন্ন এবং ঘৃণিত।  এমন অসাংবিধানিক দাবি উত্থাপন করে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট দেশবাসীর রায়কে তুচ্ছজ্ঞান করে তৃতীয়পক্ষের মাধ্যমে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্নে বিভোর হয়ে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির পায়তারা করছে।  সাধারণ মানুষ কোনদিনই স্বাধীনতার বিপক্ষ শক্তিকে সুযোগ দিবে না বলে আমি বিশ্বাস করি।  জনরায়কে উপেক্ষা-অবহেলা করে বিএনপি-ঐক্যফ্রন্ট অবৈধভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার লুকায়িত ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটিয়েছে।  জনগণ ভোট দিয়েছে তাই তাদের এভাবে অসম্মান করার কোন অধিকার ঐক্যফ্রন্টের নেই।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.