টাঙ্গাইলের জাহালমকে চাকরি দেবে ‘বাংলাদেশের খবর’

নিউজ ডেস্ক: মাগুরা গ্রুপের প্রতিষ্ঠান ‘বাংলাদেশের খবর’ পত্রিকায় চাকরি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অপরাধী না হয়েও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় তিন বছর সাজা ভোগ করা পাটকল শ্রমিক জাহালমকে।

নরসিংদীর ঘোড়াশালের বাংলাদেশ জুট মিলের শ্রমিক জাহালমকে সোনালী ব্যাংকের প্রায় ১৮ কোটি টাকা জালিয়াতির মামলায় দুদক ভুল করে নোটিশ দেয়। আসলে এ ঘটনায় প্রকৃত অপরাধী ছিল জনৈক আবু সালেক। এই ভুল গ্রেফতারি পরোয়ানার কারণে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ঘোড়াশাল থেকে গ্রেফতার করা হয় জাহালমকে। দীর্ঘ কারাভোগের পর ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে কাশিমবাজার কারাগার থেকে মুক্তি পান নির্দোষ জাহালম। তবে এই অমানবিক ঘটনার পরিসমাপ্তি হওয়ার সব কৃতিত্ব দেশের গণমাধ্যমের। গণমাধ্যমের অনুসন্ধানেই ধরা পড়ে এই চাঞ্চল্যকর অমানবিক ঘটনাটি।

সংবাদপত্রকে বলা হয় ‘ফোর্থ স্টেট’। আমাদের দেশের বেলায় আক্ষরিক অর্থে এটা খুবই সঠিক। দেশে যখন জাতীয় সংসদ থাকে না তখন নিগৃহীত মানুষ দলে দলে ছুটে আসে সংবাদপত্র অফিসে। তাদের প্রতি চালানো অন্যায়-অবিচার ও নিষ্পেষণের বিরুদ্ধে প্রতিকার পাওয়ার আশায়। এমনকি যখন গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতায় থাকে তখনো কুটিল আমলাতন্ত্র ও অপরাপর কায়েমি স্বার্থগোষ্ঠীর দ্বারা নির্যাতিত হয় সাধারণ মানুষ। প্রায়ই আমরা দেখি, বিভিন্ন সংবাদপত্রে এসব নির্যাতন-নিপীড়নের খবর বের হলে দেশব্যাপী তোলপাড় শুরু হয়। টনক নড়ে প্রশাসনের। ক্ষেত্রবিশেষে ভুক্তভোগী তার ওপর সংঘটিত ঘটনার সুবিচার পায়। জাহালমের ঘটনাটিও তারই একটি অনন্য দৃষ্টান্ত।

জাহালম শুধু বিনা দোষে কারাগারে নিক্ষিপ্ত হননি, তাকে হারাতে হয়েছে তার একমাত্র সম্বল চাকরিটিও। বিভিন্ন সংবাদপত্রের প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা গেছে, জাহালম এখন মুক্তি পেলেও কর্মসংস্থান হারিয়ে অসহায় জীবনযাপন করছেন। দুদকের বেপরোয়া ও অমানবিক আচরণে জাহালমের পরিবার এখন দিশাহারা। বর্তমানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সরকার রাষ্ট্রপরিচালনায় নিযুক্ত। এই সরকার অবশ্যই জাহালমের পুনর্বাসনে যথোপযুক্ত ব্যবস্থা নেবে। তবে সমাজেরও দায়িত্ব আছে এই অমানবিক ঘটনার শিকার জাহালমের পাশে দাঁড়ানোর। সেই বাস্তবতাকে সামনে রেখে মাগুরা গ্রুপের অন্যতম প্রতিষ্ঠান ‘বাংলাদেশের খবর’ সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাহালমের পাশে দাঁড়ানোর। তাকে এই পত্রিকায় একটি উপযুক্ত চাকরি দেওয়ার ব্যবস্থা করার ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশের খবরের সম্পাদকমণ্ডলীর সভাপতি মোস্তফা কামাল মহীউদ্দীন। এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.