ব্রেকিং নিউজ :

গৃহবধুকে এসিড নিক্ষেপে শরীর ঝলসে দিয়েছে স্বামী

নিউজ ডেস্ক: সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে মুরশিদা খাতুন (২২) নামে এক গৃহবধুকে তার স্বামী এসিড নিক্ষেপ করে শরীর ঝলসে দিয়েছে বলে গৃহবধুর পরিবার অভিযোগ করেছেন। গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাকে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল

হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। গৃহবধু মুরশিদা খাতুন কামারখন্দ উপজেলার কাচারিপাড়া ভদ্রঘাট গ্রামের গোলাম হোসেনের মেয়ে ও একই উপজেলার মেগাই ভদ্রঘাট গ্রামের আবু হানিফের স্ত্রী। গৃহবধুর পিতা গোলাম হোসেন অভিযোগ করে বলেন, প্রায় ৩ বছর আগে আবু হানিফের সাথে মুরশিদা খাতুনের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় এক ভরি স্বর্ণালংকার ও নগদ ৩০ হাজার টাকা যৌতুক দেয়া হয়।

বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে পারিবারিক কলোহ চলে আসছিলো। এর মধ্যে তাদের সংসারে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। আবু হানিফ মাঝে মধ্যে বিভিন্ন অজুহাতে টাকা নিতো। মেয়ের সংসারের কথা চিন্তা করে সাধ্য মতো তা দিয়ে দিতাম। গত ১৫ দিন আগেও ৫০ হাজার টাকা দিয়ে একটি নতুন টিনের ঘর তুলে দেয়া হয়েছে। আজ দুপুরে আবু হাফিন মুরশিদাকে ব্যাপক মারপিট করে। এর একপর্যায়ে এসিড দিয়ে তার শরীরের নিচের অংশ ঝলসিয়ে দেয়। খবর পেয়ে আমি আমার স্ত্রী ও আমার দুই ভাই আবু হানিফের বাড়ি গেলে সে ও তার পরিবার আমাদের উপর হামলা চালায়। এতে আমার ভাই মতিউর রহমান ও ইমরান হোসেন আহত হয়। পরে মুরশিদাকে সাথে নিয়ে এসে হাসপাতালে ভর্তি করে দেয়া হয়।

এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি বলেন। সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসক ডাক্তার শামীমুল ইসলাম বলেন, মুরশিদা খাতুনকে এসিড নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে তার পরিবার হাসপাতালে নিয়ে আসে। তার শরীরের নিচের অংশে ঝলসে গেছে। এটি এসিডের কারনে হয়েছে না অন্য কিছুর দ্বারা হয়েছে তা পরীক্ষা করে দেয়া হচ্ছে। তবে পরিবারের দাবী তার স্বামী তাকে এসিড নিক্ষেপ করে ঝলসে দিয়েছে।

কামারখন্দ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুল ইসলাম জানান, এসিড নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে কি না সে বিষয়ে আমাদের কাছে কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.