ব্রেকিং নিউজ :

ভাইস চেয়ারম্যান যখন প্রিসাইডিং কর্মকর্তা!

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্কঃ ৪র্থ ধাপের উপজেলা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ সকাল ৮টা থেকে ভাটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। শান্তিপূর্ণ এ ভোটগ্রহণ চললেও ভোটার উপস্থিতি খুব কম। আর চতুর্থ ধাপের এ উপজেলা নির্বাচনে ঢাকার ধামরাই উপজেলায় ভোট গ্রহণের সময় নাম পরিচয় গোপন করে প্রিসাইডিং কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করছিলেন আবুল বাশার নামে এক ব্যক্তি। আর যখন ধরা পড়লেন, জানা গেল সপ্তাহ খানেক আগে হয়ে যাওয়া তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ছিলেন তিনি!

তবে তিনি পার পেয়ে যেতে পারেনি। এ ঘটনা জানাজানি হওয়ার পরে দুপুর ১২টার দিকে তাকে আটক করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রণব কুমার ঘোষ।

জানা গেছে, ওই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কালাম। তিনি ধামরাইয়ের আমসিমুর সেপিপ মডেল হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক। চতুর্থ ধাপের উপজেলা নির্বাচনে কান্দাপটল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে প্রিসাইডিং অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। তিনি গত ২৪ মার্চের তৃতীয় ধাপের নির্বাচনে জাতীয় পার্টি থেকে দাঁড়িয়ে একই জেলার সাটুরিয়া উপজেলা থেকে ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

পরবর্তীতে তথ্য গোপন করে দায়িত্ব পালনের দায়ে তাকে আটক করা হয়। আর তিনি যে কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করছিলেন সে কেন্দ্রে পাওয়া গেছে অসামঞ্জস্যতাও। সে কেন্দ্রটিতে ভোট পড়েছে প্রায় ৪০%। যেখানে অন্যান্য কেন্দ্রে গড়ে ২% থেকে ১০% পর্যন্ত ভোট পড়েছে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট প্রণব কুমার ঘোষ জানিয়েছেন, আবুল বাশারের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কালাম জানিয়েছেন, কী ব্যবস্থা নেওয়া হবে তা জানানো হবে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.