টাঙ্গাইলে শীলাবৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে শীলাবৃষ্টিতে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে ৷ উপজেলার রসুলপুর ও ধলাপাড়া ইউনিয়নের নেদার বিল ও চাপড়া বিলসহ বেশ কয়েকটি বড় বড় বিলের এবং পার্শবর্তী সখীপুর উপজেলার ইন্দ্রাজানি ইউনিয়নের হাজার হাজার একর জমির ধান তলিয়ে গেছে ৷

কৃষি প্রধান দেশে কৃষকদের যখন একমাত্র ভরসা ধান সেখানে এসব অঞ্চলে বোরো ধান তলিয়ে যাওয়ায় স্থানীয় কৃষকদের শেষ সম্বলটুকুও আর ঘরে ফিরলো না ৷ গত কয়েক দিনের পর পর দুইদফা শীলাবৃষ্টিতে যেমন নিম্নাঞ্চলের ধান তলিয়ে গেছে ঠিক তেমনি উচু অঞ্চলের ধানের শীষ গুলো বের হওয়ার আগেই শীলাবৃষ্টির আক্রমনে ছিন্নভিন্ন ৷ কৃষকরা চৈত্রমাস কে যেমন খড়ার জন্য হাহাকার করতো এবার তার বিপরীত আকার ধারন করেছে প্রকৃতি সামান্য বৃষ্টিতেই নিম্নাঞ্চলের সব ধান পানির নিচে৷

এসব এলাকায় সরোজমিনে গিয়ে স্থানীয়দের সাথে কথা বললে তারা জানান, রসুলপুর ইউনিয়নের নেদার বিল থেকে একটি খাল প্রবাহিত হয়ে ধলাপাড়ার চাপড়া বিল দিয়ে সখিপুর উপজেলায় প্রতিত হয়েছে ৷ কিন্তু কিছু প্রভাবশালী অসাধু লোকজন খালটি ভরাট করে ফেলেছে ৷ যার ফলে এসব এলাকার নিম্নাঞ্চলের পানি নিষ্কাশনের মাত্রা কমেগেছে বা বিগ্নিত হচ্ছে ৷যার জন্য অল্প বৃষ্টিতে পানি জমে ফসলের জমি তলিয়ে যাচ্ছে ৷

হারেজ মিয়া জানান, তিনি সাধারন কৃষক তার সম্বল বলতে বিলের রোরো ধান তবে তলিয়ে যাওয়ায় তার সম্বলটুকু আর রইলো না ৷ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করে এর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য আকুল আবেদন করেন ৷

কাঠালিয়া আটা গ্রামের রফিক মাস্টার জানান, খালটি কিছু অসাধু লোকেরা ভরাট করায় পানি নিষ্কাশন ব্যবস্থা নাই বললেই চলে তাই পানি জমার ফলে স্বল্প বৃৃষ্টিতেই বিলের জমির ধান তলিয়ে যায় ৷ স্থানীয়দের দাবী প্রশাসন যেন দ্রুত প্রদক্ষেপ গ্রহন করে খালটি খননের মাধ্যমে পানির প্রবাহ গতিশীল করেন যেন আগামী বোরো ফসল ভালোভাবে কৃষকদের ঘরে তুলতে পারেন ৷

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.