ব্রেকিং নিউজ

প্রেমে রাজি না হওয়ায় স্কুলছাত্রীকে কুপিয়ে জখম

নিউজ ডেস্ক:মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ছামিরা আক্তার (১৪) নামে ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে কুপিয়ে জখম করেছে জুয়েল (১৯) নামে এক যুবক। শনিবার দুপুরে স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পথে উপজেলার ভুকশিমইল ইউনিয়নের ঘাটেরবাজার এলাকায় ওই ছাত্রীর ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই ছাত্রীকে প্রথমে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ও পরে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। হামলাকারী জুয়েলকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন স্থানীয়রা।

আহত ছাত্রীর চাচা মুজিবুর রহমান ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কুলাউড়া উপজেলা সদরের আলহেরা ইসলামী কেজি স্কুলের ৮ম শ্রেণির ছাত্রী ছামিরা আক্তারকে বেশ কিছুদিন ধরে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল সাদিপুর গ্রামের বকুল মিয়ার ছেলে জুয়েল। এতে রাজি না হওয়ায় শনিবার দুপুর আড়াইটার দিকে ছামিরা স্কুল থেকে প্রথম সাময়িক পরীক্ষা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে জুয়েল দা দিয়ে অতর্কিতভাবে তাকে কুপিয়ে জখম করে। এ সময় ছামিরার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমেপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এদিকে ঘটনাস্থল থেকে স্থানীয় লোকজন বখাটে জুয়েলকে দাসহ আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ জুয়েলকে থানায় নিয়ে যায়।

কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুরুল হক জানান, ওই ছাত্রীকে মাথার ডান থেকে পেছনের দিকে কোপানো হয়েছে। এতে তার ডান কান অর্ধেকটা ঝুলে গেছে। পেছন দিকে কোপের গভীরতা দুই ইঞ্চি পরিমাণ। আহত শিক্ষার্থীর অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও তিনি জানান।

কুলাউড়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইয়ারদৌস হাসান জানান, এ ঘটনায় মামলা হবে। আটক জুয়েলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.