ব্রেকিং নিউজ
News Tangail

টাঙ্গাইলে গলা কেটে ব্যবসায়ী হত্যা ঘটনায় ৩ স্কুলছাত্র গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের মধুপুরে বাড়ি ফেরার পথে আব্দুল জলিল (৫৫) নামের এক ব্যবসায়ীকে গলা কেটে হত্যা করে টাকা ছিনতাই করার ঘটনায় ৩ স্কুল শিক্ষার্থীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার বিকেলে উপজেলার বিভিন্নস্থান থেকে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন উপজেলার সটিবাড়ি এলাকার বেল্লাল হোসেনের ছেলে রাকিব হাসান হিমেল (১৬) এবং অলিপুর গ্রামের মৃত মইন উদ্দিনের ছেলে সাদিকুল ইসলাম সাদিক (১৭)। তারা দুইজনেই রাণী ভবানী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ শ্রেণির ছাত্র। এবং আশুড়া উত্তর পাড়ার আব্দুল লতিফের ছেলে রাজু আহমেদ (১৫)। রাজু কালামাঝি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির ছাত্র।

মধুপুর সার্কেলের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) কামরান হোসেন বলেন, এ হত্যাকা-ের পর পুলিশ আসামিদের গ্রেফতারের অভিযান অব্যাহত রাখে এবং রহস্যা উদঘাটনের জন্য নিরলস কাজ করে। এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে নিজ নিজ এলাকা থেকে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের মূল উদ্যেশ্য ছিল ওই ব্যবসায়ীর কাছ থেকে টাকা ছিনতাই করা।

তিনি আরো বলেন, আব্দুল জলিল যেদিন খুন হন তার পরদিন ছিল হাট। তিনি হাটের আগের দিন রাতে টাকা কালেকশন করে নগট টাকা নিয়ে বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে ছিনতাই করতেই হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটেছে। আব্দুল জলিল প্রায়ই নগদ টাকা নিয়ে চলাচল করতেন। ছিনতাই করে টাকা নেয়ার সময় জলিল তাদেরকে চিনে ফেলে। তখন শিক্ষার্থী রাকিব হাসান হিমেল ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করে হত্যা করে মৃত্যু নিশ্চিত করে পালিয়ে যায়।
শিক্ষার্থী রাজু জলিলের ওপর বেশ কিছুদিন ধরে নজর রেখেছিল। এছাড়া সাদিক পুরো বিষয়টি কো-অডিনেশন এবং ছিনতাই করার পরিকল্পনা করে।

তিনি আরো বলেন, হত্যার আগে কিছুদিন তারা জলিলের ওপর নজর রাখছিল। এ হত্যাকা-ে যদি আরো কেউ জড়িত থাকে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।
উল্লেখ্য, গত ১৫ এপ্রিল রাতে জলিল মধুপুর থেকে অনুমানিক পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে অলিপুরে নিজ বাড়ির দিকে যাচ্ছিলেন। টাঙ্গাইল-মধুপুর সড়ক থেকে অলিপুরের বাড়ির দিকের রাস্তা ধরে একটু এগোতেই অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তার পথরোধ করে দাঁড়ায়। এরপর তার সঙ্গে থাকা টাকা কেড়ে নিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি কোপ দেয় ও গলায় আঘাত করে। পরে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জলিলকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মধুপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত আব্দুল জলিল অলিপপুর একই গ্রামের কুদ্দু মন্ডলের ছেলে। তিনি ধানসহ বিভিন্ন শস্যের ব্যবসা করতেন। এ ঘটনায় থানায় অজ্ঞাতনামে আসামি করে মামলা করা হয়।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.