ব্রেকিং নিউজ

দ্রুত সংস্কার প্রয়োজন টাঙ্গাইলের আতিয়া মসজিদ

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: বাংলাদেশের প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের অন্যতম প্রায় ৪ শত বছর পুরোনো ইসলামি স্থাপত্যর নিদর্শন টাঙ্গাইলের আতিয়া জামে মসজিদ। চুন সুরকির দ্বারা নির্মিত ৪ কোণে ৪টি অষ্টকোণাকৃতির মিনার বিশিষ্ট এই মসজিদটি সুলতানি ও মোগল স্থাপত্যরীতির সুস্পষ্ট নিদর্শন। বর্তমানে মসজিদটির তিনটি নকশা আঁকা দেওয়ালের একটিতে লোনা ধরেছে, ক্ষয়ে যেতে বসেছে শিল্প কর্ম গুলো। ফলশ্রুতিতে এর দ্রুত সংস্কারের দাবী রয়েছে টাঙ্গাইলের সচেতন মহলের।

জানা যায়, মসজিদটি আকারে বেশ ছোট, তবে এর মনোমুগ্ধকর কারুকার্য হার মানায় তার আয়তনকে। ৫টি প্রবেশদ্বার সম্বলিত মসজিদটির সামনের অংশে পোড়ামাটির বিভিন্ন নকশা আঁকা ৩টি দেওয়াল রয়েছে। মসজিদটির কার্নিশে শিল্পকর্মের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে তৎকালীণ বাংলার বেশকিছু রূপ। এছাড়া পোড়ামাটির তৈরি অসংখ্য ফুলের নকশা থাকার কারণে আতিয়া মসজিদটি বেশ দৃষ্টিনন্দন।

ষোড়শ শতাব্দিতে নির্মিত এই মসজিদটি বর্তমানে বাংলাদেশ সরকারের পুরাতত্ত্ব বিভাগের তত্ত্বাবধানে রয়েছে। মানুষের হাতের কারুকার্য কতটা নিখুঁত আর সুন্দর হতে পারে এই মসজিদটিই তার অন্যতম উদাহারণ। অসংখ্য নকশা খচিত মসজিদটির গায়ে খোদাই করা আরবি হরফগুলোতে হাত বুলালে মনে হয় ৪ শত বছর পুরোনো সেই সময়টিতে চলে গেছি। বর্তমানে মসজিদটির তিনটি নকশা আঁকা দেওয়ালের একটিতে লোনা ধরে গেছে। ক্ষয়ে যেতে বসেছে শিল্প কর্ম গুলো।

দ্রুত সংস্কার না করলে নষ্ট হয়ে যেতে পারে প্রায় ৪ বছরের পুরোনো মোগল ও প্রাক মোগল স্থাপতের অপূর্ব নিদর্শন আতিয়া জামে মসজিদ মাটির কাজ করা দেওয়ালের মোটিফগুলো। এই ব্যাপারে যথাযথ কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করছেন টাঙ্গাইলের সচেতন মহল।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.