দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম টাঙ্গাইলের করটিয়া হাটে ক্রেতা-বিক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড়

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শাড়ি কাপড় বিক্রির হাট টাঙ্গাইলের করটিয়ায় ক্রেতা বিক্রেতাদের ঈদ উপলক্ষে উপচেপড়া ভিড় এখন। দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ক্রেতারা আসছেন টাঙ্গাইলের শাড়ি কিনতে। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর অনেক ভালো বিক্রির আশা করছেন করটিয়া পাইকারি কাপড়ের হাট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক।

টাঙ্গাইলের করটিয়া শাড়ির কাপড় বিক্রির হাটে দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে হাজার হাজার ব্যবসায়ী প্রতি মঙ্গলবার টাঙ্গাইল শাড়ি কিনতে আসেন। জেলার দেলদুয়ার উপজেলার পাথুরাইল নলসুধা ও কালিহাতি উপজেলার বল্লাররামপুর এলাকার তাতি ও ব্যবসায়ীরাও তাদের উৎপাদিত শাড়ি প্রতি মঙ্গলবার কাকডাকা ভোর থেকে পাইকারি ক্রেতাদের জন্য অপেক্ষা করেন। আর পাইকারি ক্রেতারা নতুন শাড়ি তাদের দোকানে নিয়ে খুচরা ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে টাঙ্গাইলের করটিয়া হাটে ছুটে আসেন।

স্বাভাবিক সময়ে প্রতি হাটে প্রায় ২০০ থেকে ৩০০ কোটি টাকার শাড়ি বিক্রি হয়। আর ঈদে বিক্রি হয় এর দ্বিগুণ। প্রতিবছরের মতো এবারও তাতিরা শাড়ি তৈরি করে করটিয়া হাটে নিয়ে এসেছেন বিক্রি করতে। ব্যবসা নিয়ে ক্রেতাদের রয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া।

অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর অনেক ভালো বিক্রির আশা করছেন করটিয়া পাইকারি কাপড়ের হাট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. শাহজাহান আনসারী।

তিনি বলেন, হাটে ঈদের মৌসুমে বেশ ভালো বেচাকেনা হবে বলে আমরা আশা করছি।

টাঙ্গাইলের করটিয়া হাট প্রায় ১৭৫ বছর আগে করটিয়ার জমিদার শাহাদাত আলী খান পন্নী প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। এই হাটে সত্তরটি মার্কেটে প্রায় ২০ হাজার দোকান রয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.