ঘাটাইলে ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট মামলাচারমাস পেরিয়ে গেলেও আসামিদের গ্রেফতার করেনি পুলিশ

এম সাইফুল ইসলাম শাফলু : জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার সাগর দিঘী বাজারের জালালপুর এলাকায় প্রকাশ্যে একতা ফুড প্রোডাক্টের ৫টি গোদাম ঘর থেকে দেশিয় অস্রের মূখে প্রায় ১০লাখ টাকার মালামাল লুট হওয়ার ঘটনায় মামলার চারমাস পেরিয়ে গেলেও ১০ আসামির কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। আসামি ধরার নামে বাদীর কাছ থেকে নানা অজুহাতে কয়েক দফায় টাকা নিলেও কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। উল্টো ওই কর্মকর্তা বাদীকে আসামির খবর দিলে ধরে দেওয়ার কথা বলে নানা তালবাহানা করছেন।

গত ২৭ এপ্রিল নিরুপায় মামলার বাদী একতা ফুড প্রোডাক্টের মালিক আলহাজ ইউসুফ আলীর ছেলে হায়দার আলী আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার ও মামলার অগ্রগতি চেয়ে টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। পরে ঘাটাইলের সাগরদিঘী ফাঁড়ির মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই ফজলুল হককে মামলার অগ্রগতির নির্দেশনা দেন পুলিশ সুপার। তাতেও কিছু হয়নি।

মামলার অগ্রগতির বিষয়ে জানতে চাইলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফজলুল হক বলেন- আসামিরা গাঁ ডাকা দিয়েছেন। গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। বাদীকে আসামির খোঁজ পেলে আমাকে জানাতে বলেছি।

মামলার বাদী হায়দার আলী বলেন- মামলার চারমাস অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত একজন আসামিকেও পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। উল্টো তদন্তকারী কর্মকর্তা নানা তালবাহানা করছেন।এ বিষয়ে ঘাটাইল থানার ওসি মাকছুদুল আলমের মুঠোফোনে বার বার চেষ্টা করে তিনি তুলেননি।

প্রসঙ্গত: ঘাটাইল উপজেলার সাগরদিঘী জালালপুর এলাকার মৃত বছির উদ্দিনের ছেলে আলহাজ ইউসুফ আলীর সঙ্গে একই এলাকার আলহাজ রুপার ছেলে নয়া সিকদারের জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। উভয় পক্ষের লোকজন ও জমির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে বেশ কয়েকবার শালিশী বৈঠক হলে একতা ফুড প্রোডাক্টের মালিক হাজী ইউসুফ আলীর পক্ষেই রায় হয়। এরই জের ধরে গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ভোরে দেশিয় অস্ত্র সস্ত্র নিয়ে নয়া সিকদার ও তার লোকজন ওই গোদামঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে এবং প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায় দূবৃত্তরা। বাধা দিতে গেলে ওই গোদামের মালিক হায়দার আলীর বাবা আলহাজ ইউসুফ আলী (৭০) ছোট ভাই হাসমত আলী এবং তার স্ত্রী জরিনা বেগমকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। খবর পেয়ে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে অস্ত্রের মুখে মালামাল লুট করে দূবৃত্তরা পালিয়ে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ওই দিনই একতা ফুড প্রোডাক্টের মালিক হায়দার আলী বাদী হয়ে হামলা ও লুটপাটের করার অভিযোগে ঘাটাইল থানায় রুপা সিকদারে ছেলে শাজাহান ওরফে নয়া সিকদার তার ভাই লালু সিকদার,মৃত আনিসুর রহমানের ছেলে শফি মিয়া, হাজী রুস্তম আলীর দুই ছেলে আবদুল কদ্দুস ও আবদুল কাদেরসহ ১০ জনকে আসামি করে মামলা করেন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.