ব্রেকিং নিউজ

৮ মাস আগেই এসএসসির রুটিন প্রকাশের প্রস্তাব

নিউজ ডেস্ক: আট মাস আগেই মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও সমমান পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশের প্রস্তাব করছে আন্তঃশিক্ষা বোর্ড। পরীক্ষার আগে শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেয়ার লক্ষ্যে ১৫ জুলাই এ সময়সূচি প্রকাশ করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে এ সময়ের মধ্যে ২০২০ সালের এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ করা হবে।

তবে আগের চেয়ে পরীক্ষার সময় ১০ দিন কমিয়ে রুটিন তৈরি করা হয়েছে। এসএসসির প্রস্তাবিত রুটিনে দেখা গেছে, পূর্বের ধারাবাহিকতা রেখেই ১ ফেব্রুয়ারি বাংলা প্রথম পত্র পরীক্ষার মাধ্যমে ২০২০ সালের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে। ২০ ফেব্রুয়ারি হিসাব বিজ্ঞান সৃজনশীল তত্ত্বীয় পরীক্ষার মাধ্যমে শেষ হবে। আগে ২৫ দিন পর্যন্ত তত্ত্বীয় পরীক্ষা আয়োজন করা হতো।

অন্যদিকে ২১-২৫ ফেব্রুয়ারি ব্যবহারিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ব্যবহারিক পরীক্ষা থেকে মোট পাঁচদিন সময় কমানো হয়েছে। আগে তত্ত্বীয় পরীক্ষা শেষে ১০ দিন পর্যন্ত ব্যবহারিক পরীক্ষা আয়োজন করা হতো।

অপরদিকে জেএসসি পরীক্ষার রুটিনে বলা হয়েছে, পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে শিক্ষার্থীকে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। এরপর প্রবেশ করলে অবশ্যই তার কারণ ও সেই পরীক্ষার্থীর বিস্তারিত তথ্য দিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে হবে। সেসব তথ্য দায়িত্বরত শিক্ষকরা রেজিস্টার খাতায় লিখে সংশ্লিষ্ট বোর্ডে পাঠিয়ে দেবে।

আরও বলা হয়েছে, প্রশ্নপত্রে উল্লেখিত সময় অনুযায়ী পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে, প্রথমে বহুনির্বাচনী ও পরে সৃজনশীল/রচনামূলক (তত্ত্বীয়) এবং উভয় পরীক্ষার মধ্যে কোনো বিরতি থাকবে না। পরীক্ষার্থীরা প্রবেশপত্র নিজ নিজ প্রতিষ্ঠান থেকে পরীক্ষা শুরুর কমপক্ষে তিনদিন আগে সংগ্রহ করবে। ফল প্রকাশের পরে সাতদিনের মধ্যে ফল পুনঃনিরীক্ষার আবেদন করতে বলা হয়েছে।

এ বিষয়ে আন্তঃশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ডের সভাপতি ও ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মু. জিয়াউল হক বলেন, শিক্ষার্থীদের মানসিক চাপ সৃষ্টি হয়, সেটি কমিয়ে আনতে এসএসসি পরীক্ষার সময়সূচি আট মাস আগেই প্রকাশ করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। অনুমোদন পেলে জুলাইয়ের মাঝামাঝি জেএসসি-জেডিসি ও এসএসসি-সমমান পরীক্ষার রুটিন একসঙ্গে প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, আগের চেয়ে জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা আয়োজনে ১৫ দিন ও এসএসসি পরীক্ষায় ১০ দিন সময় কমিয়ে আনা হয়েছে। পরীক্ষা শুরুর কয়েক মাস আগে শিক্ষার্থীদের কাছে রুটিন থাকলে তারা পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিতে পারবে। পরীক্ষা নিয়েও তাদের টেনশন কমবে। এ কারণে আট মাস আগেই সময়সূচি প্রকাশের প্রস্তাব করা হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.