ভূঞাপুর-তারাকান্দি সড়ক মেরামতে কাজ করছে সেনাবাহিনী

নিজস্ব প্রতিনিধি : অস্বাভাবিকভাবে টাঙ্গাইলের যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে তারাকান্দি-ভূঞাপুর সড়ক ভেঙে সব ধরণের যানবাহন চলাচল বন্ধ ও যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

বন্যানিয়ন্ত্রন বাঁধ হিসেবে ব্যবহৃত এই সড়কটি প্রায় ১০০ মিটার অংশ ধসে গেছে। বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে ওই সড়কের ভূঞাপুর পৌরসভার টেপিবাড়ি নামক স্থানে এ ভাঙনের ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার সকাল থেকেই রাস্তাটি মেরামতের কাজ করে যাচ্ছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। তাদের সাথে যোগ দিয়েছে সেনাবাহিনীর একটি দল। পানি সম্পদ মন্ত্রণায়লের সচিব কবীর বিন আনোয়ার ভাঙ্গন পরিদর্শন করে দ্রুত পদক্ষেপের আশ্বাস দিলেও প্রবল স্রােতের কারনে মেরামত কাজ করতে সময় লাগছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ। টাঙ্গাইল অংশে যমুনার নদীর পানি শুক্রবার বিপদসীমার ৯৯ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও আজ শনিবার সকালে ৬ সে.মি. কমে বিপদ সীমার ৯৩ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এ বন্যায় টাঙ্গাইল সদর, ভূঞাপুর, গোপালপুর, কালিহাতী, নাগরপুর, দেলদুয়ার উপজেলার প্রায় ১৭০টি গ্রামের কয়েক লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে ফসলি জমি। গবাদিপশু নিয়ে পড়েছেন বিপাকে। অন্যদিকে এ জেলায় প্রায় শতাধীক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পানি প্রবেশ করায় পাঠদান বন্ধ রয়েছে বলে জানিয়েছে জেলা প্রশাসক শহিদুল ইসলাম।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.