ব্রেকিং নিউজ

টাঙ্গাইলে ছেলে ধরা সন্দেহে তিন যুবককে গণধোলাই

নিজস্ব প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলে ছেলে ধরা সন্দেহে পৃথকস্থানে তিন যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা। টাঙ্গাইল সদর এবং কালিহাতী উপজেলায় এ ঘটনা ঘটে। পুলিশ তাদেরকে চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ছেলে ধরা সন্দেহে এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয় জনতা। রোববার বিকেলে নারান্দিয়া ইউনিয়নের সয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। প্রথমে তাকে কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করে। খবর পেয়ে স্থানীয় জনতা ছেলে ধরার শাস্তির দাবিতে হাসপাতাল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ বিষয়ে কালিহাতী থানার এসআই ফারুক বলেন, ছেলে ধরা সন্দেহে গণপিটুনির শিকার যুবককে কালিহাতী উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্স থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পুলিশি প্রহরায় টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

তবে আহতের স্বজনেরা জানান, বাড়ির চারপাশে বন্যার পানি। বাড়িঘর পানিতে তলিয়ে গেছে। ঘরে খাবার নেই। তাই সে জাল কিনতে সয়া হাটে এসেছিলেন।

অপরদিকে রোববার সকালে টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউনিয়নের কান্দিলা বাজারে ছেলে ধরা সন্দেহে এক যুবককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোর্পস করেছে জনতা। খবর পেয়ে পুলিশ ওই যুবককে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেলারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। ওই যুবকের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

টাঙ্গাইল সদর উপজেলার গালা ইউপি সদস্য মজনু মিয়া জানান, রোববার সকালে জানতে পারি কান্দিলা বাজারে ছেলে ধরা সন্দেহে একজনকে মারধর করা হচ্ছে। তাৎক্ষনিকভাবে বাজারে গিয়ে দেখতে পাই ওই লোকটাকে ঘিরে অনেক মানুষ দাঁড়িয়ে আছে। পরে পুলিশে খবর দিলে তারা এসে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে।

টাঙ্গাইল সদর ফাঁড়ির পরিদর্শক মোশারফ হোসেন জানান, ছেলে ধরা সন্দেহে গণধোলাইয়ের শিকার যুবকটি খুবই অসুস্থ, কথা বলতে পারছে না। তিনি ছেলে ধরা কিনা এখনই তা বলা যাবে না।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল সদর মডেল থানার (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন বলেন, বর্তমানে ওই ব্যক্তি হাসপাতালে চিকিসাধীন অবস্থায় রয়েছে। তদন্ত করে বিস্তারিত জানা যাবে।

তিনি আরোও জানান,টাঙ্গাইল শহরে মাইকিং করা হচ্ছে। কাউকে সন্দেহ হলে আইন নিজের হাতে তুলে না নিয়ে পুলিশকে খবর দেয়ার জন্য বলা হচ্ছে।

অন্যদিকে, শনিবার রাতে টাঙ্গাইল পৌরসভার শান্তিকুঞ্জমোড়ে এক যুবককে ছেলে ধরা সন্দেহে স্থানীয়রা এক যুবককে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। পুলিশ তাকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে। তার নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

টাঙ্গাইল জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে আইন নিজের হাতে তুলে নিতে নিষেধ করা হয়েছে। কারো আচরণ সন্দেহজনক হলে পুলিশে জানানোর অনুরোধ করা হয়েছে। এ বিষয়ে জেলা পুলিশের তরফে মাইকিং করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.