ব্রেকিং নিউজ

সখীপুরে সড়কে গাছ ফেলে ডাকাতির চেষ্টা; ১০ রাউন্ড গুলি; দুই ডাকাত গ্রেফতার

এম সাইফুল ইসলাম শাফলু: টাঙ্গাইলের সখীপুরে রাস্তায় গাছ ফেলে ডাকাতির চেষ্টাকালে মো. শামীম আহমেদ ওরর্ফে ফরিদ (৩৫) এবং আল-আমীন (৩১) নামের দুই আন্তজেলা ডাকাত দলের সদস্যকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার ভোররাত ৩.১০ মিনিটে উপজেলার নলুয়া-টাঙ্গাইল সড়কের নলুয়া বুড়ি বাঈদ ব্রীজ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত পিকআপ ভ্যান-ঢাকা মেট্রো-ন-১৭-৯৭৯৭ এবং দুটি চাপাতি ও দুটি লোহার রড উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় রাতেই এসআই আয়ুব আলী বাদী হয়ে সখীপুর থানায় ডাকাতির চেষ্টার মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, শনিবার এসআই আয়ুব আলীর নেতৃত্বে সিএনজি যোগে ৫ পুলিশ সদস্য রাতের টহলে বেড় হন। টহলের এক পর্যায়ে ভোররাত ৩.১০ মিনিটে নলুয়া- টাঙ্গাইল সড়কের বেড়বাড়ী বুড়ি বাঈদ ব্রীজের কাছে পৌঁছলে রাস্তার দুপাশ থেকে গাছ ফেলে ১৩/১৪ সদস্যের একদল ডাকাত তাদেরকে যাত্রী ভেবে গতিরোধ করে। এ সময় পুলিশের পোশাক দেখে তারা দৌড়ে পালাবার চেষ্টা করলে পুলিশ তাদেরকে লক্ষ করে ১০ রাউন্ড গুলি ছুড়েন। এক পর্যায়ে ডাকাতরা তাদের ব্যবহৃত পিকআপ ভ্যানে ওঠে পালাবার চেষ্টা করলে পুলিশ গুলি করে পিকআপ ভ্যানের চাকা ফুটো করে দেয়। এসময় ডাকাতরা দৌড়ে পালাবার চেষ্টা কালে বাসাইল উপজেলার কাশিল গ্রামের রিয়াজ উদ্দিনের ছেলে মো. শামীম আহমেদ ওরফে ফরিদ (৩৫) এবং ভূয়াপুর উপজেলার কষ্টাপাড়া গ্রামের আবদুর রশিদের ছেলে আল-আমীন (৩১) নামের দুই ডাকাতকে গ্রেফতার করা হয়। খবর পেয়ে ওই রাতেই সখীপুর থানার ওসি মো. আমির হোসেন ও ওসি তদন্ত এএইচ এম লুৎফুল কবির ঘটনাস্থলে গিয়ে রাস্থা থেকে গাছ অপসারণ করে চলাচল স্বাভাবিক করে দেন।

সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) এএইচ এম লুৎফুল কবির বলেন- রাস্তায় গাছ ফেলে ডাকাতির চেষ্টাকালে আন্তজেলা ডাকাত দলের সদস্য মো. শামীম আহমেদ ওরফে ফরিদ এবং আল-আমীনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ডাকাতিসহ একাধিক মামলা রয়েছে। জিঙ্গাসাবাদ শেষে ওইদুই ডাকাততে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হবে। বাকী ডাতাতদেরও গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.