ব্রেকিং নিউজ

সখীপুরে যুবকের ছুরিকাঘাতে মা, বাবা ও ভাই আহত

নিজস্ব প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলায় এক যুবক ছুরিকাঘাতে তাঁর মা, বাবা ও ছোট ভাইকে গুরুতর আহত করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।  রোববার সকাল ১০টার দিকে সখীপুরের মহানন্দপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে দুজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আহত ব্যক্তিরা হলেন মা রাশেদা বেগম (৫৫), বাবা আবদুল হাকিম (৬০) ও ছোট ভাই আবু তাহের (২৫)। স্থানীয় ব্যক্তিরা তাঁদের উদ্ধার করে প্রথমে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। তবে বাবা ও ভাইয়ের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁদের ঢামেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত যুবকের নাম রাশিদুল ইসলাম (৩৫)। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রতিবেশীরা রাশিদুলকে মারধর করে বাড়িতে আটক করে রেখেছিলেন। তবে তিনি ছুরি দিয়ে নিজেকে রক্তাক্ত করেছেন। তাঁকেও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

প্রতিবেশীরা বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে রোবার সকালে রাশিদুল তাঁর মা রাশেদাকে মারধর শুরু করেন। এটা দেখে ছোট ভাই তাহের এগিয়ে এলে তাঁকে ছুরিকাঘাত করেন রাশিদুল। এ সময় বাবা এগিয়ে এলে তাঁকেও ছুরিকাঘাত করা হয়। এরপর তিনি মাকেও ছুরিকাঘাত করেন। পরে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসেন। তাঁরা আহত ব্যক্তিদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নেন।

সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসা কর্মকর্তা নাজমুল হাসান মাসুদ খান বলেন, আহত আবু তাহেরের বুকের বাঁ পাশে ছুরির গুরুতর আঘাত আছে। এ ছাড়া বাবা আবদুল হাকিমের বাঁ পাশের বুকে ও বাঁ হাতে আঘাত লেগেছে। মা রাশেদা বেগমকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

রাশিদুলের চাচাতো ভাই বছির উদ্দিন বলেন, রাশিদুলের মাথায় একটু সমস্যা আছে। তবে এ ধরনের ঘটনা ঘটাবেন, তা কখনো কেউ আশা করেনি।

সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমির হোসেন বলেন, এ ঘটনায় থানায় এখনো কোনো অভিযোগ আসেনি।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.