ধনবাড়ীতে অর্ধশত স্পটে বসে মাদক ও জুয়ার আসর, নজর নেই প্রশাসনের

ধনবাড়ী প্রতিনিধি : প্রতিনিধি টাঙ্গাইলের ধনবাড়ীতে অর্ধশত স্পটে চলছে মাদক কেনা-বেচা ও জোয়ার আসর। প্রকাশ্যে এসব কর্মকান্ড চললেও প্রশাসনের নেই কোন নজরদারী।

জানা যায়, পৌর শহরের ঈদ গাঁ রোডে প্রতিদিন মোবাইলে প্রকাশ্যে চলে ডিজিটাল জুয়া খেলা। জুয়া খেলার নামে দিন-রাত এখানে সময় দেন বিভিন্ন পরবহনের শ্রমিক, ড্রাইভার, হেলপার, সিএনজি ও অটো-রিকশা চালকেরা। ঈদ গাঁ রোডের পুষ্প প্রি-ক্যাডেট এন্ড হাই স্কুলের মূল ফটকের সামনে ও একই রোডের বিভিন্ন সেলুন, চায়ের দোকান ও ক্রীড়া ভবন চত্বরে বসে এ জুয়ার আসর এবং অনুপম প্রিক্যাডেট স্কুলের মূল ফটকে ফেমাস ফামের্সীতে চলে বখাটেদের আড্ডা।

সরেজমিনে দেখা যায়, এ ধরনের জুয়াড়ীরা প্রথমে একত্রিত হয়ে খেলোয়াড় নির্ধারণ করে বাজি বা জুয়ার টাকা এক জনের মাধ্যমে জমা রেখে মোবাইলে জুয়া খেলা শুরু করে।

স্থানীরা জানান, লোভের বশবর্তী হয়ে ধনবাড়ীর বিভিন্ন পরবহনের শ্রমিক, ড্্রাইভার, হেলপার, সিএনজি ও অটো-রিকশা চালকেরা এ জুয়ার আসর বসায়। এছাড়াও খেলা চলাকালীন সময়ে জুয়ার আসরে হেরে যাওয়ার কারণে নানা ধরনে উত্তেজনারও সৃষ্টি হয়।

এদের দেখে উপজেলার বিভিন্ন স্কুল-কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা এ খেলার দিকে জোকে পড়ছে। ফলে বেকার ও মাদকাসক্ত ব্যক্তির সংখ্যাও দিনদিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। শুধু ঈদ গা রোডেই নয় উপজলার ধনবাড়ী ধান হাটি, কাচা বাজার, মাছ বাজার, উত্তর মিয়া পাড়া মোড়, সর্দাও পাড়া, পৌর শহরের পশ্চিমা পট্টি, বিলাশপুর, বেলুটিয়া মোড়, পাইস্কা বাজার, কয়ড়া বাজার, বাঐজান মোড়, কাঁঠালিয়া বাড়ী মোড়, মুশুদ্দি জামতলা মোড়, বটতলা, চৌরাস্তা, বানিয়া বাজার, সয়া, মুশুদ্দি বাজারসহ প্রায় অর্ধশত স্পটে চলে এধরনের জুয়ার আসর ও মাদক কেনা-বেচা।

বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা জানান, আমাদের স্কুল-কলেজের আশপাশে এরা প্রতিদিনিই মাদক ও জুয়ার আসর বসায়। এসব মাদক ও জুয়া খেলা প্রতিরোধের জন্য সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ধনবাড়ী উপজেলার সচেতন মহল।

ধনবাড়ী উপজেলার বলিভদ্র ইউপি চেয়ারম্যান সুরুজ্জামান মিন্টু বলেন, এটা আমাদের নজরে এসেছে। এ ডিজিটার জুয়া খেলা বন্ধ করা দরকার এবং স্থানীয় প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন ধনবাড়ী উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক জীবন মাহমুদ শক্তি বলেন, মাদক ও জুয়া খেলা সামাজিক অবক্ষয়ের একমাত্র কারণ। বিশেষ করে এ খেলা যদি টাকার বিনিময়ে হয়ে থাকে এটার বিরদ্ধে প্রশাসনের আইনগত ব্যবস্থা নেয়া জরুরী।

ধনবাড়ী থানার ওসি (তদন্ত) খান হাসান মোস্তাফা জানান, এ ডিজিটাল জুয়া খেলা নিয়ে সমাজ যেন ধ্বংস না হয়। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলে প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ধনবাড়ী পৌর সভার মেয়র খন্দকার মঞ্জুরুল ইসলাম তপন জানান, মাদক ও জুয়ার বিরুদ্ধে অবশ্যই নজরদারী বাড়ানো দরকার। কোনভবেই ধনবাড়ীতে মাদক ও জুয়া চলতে দেয়া হবে না।

 

 

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.