News Tangail

পুরুষরাও যৌ’ন নির্যা’তনের শি’কার হয়: সানি লিওন

কর্মক্ষেত্রে যৌ’ননিগ্রহ বিষয়ে বলিষ্ঠ মতামত দিয়ে আলোচনায় এসেছেন বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওন। #মিটু আন্দোলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শুধু নারীরাই নয়, পুরু’ষদেরও যৌ’ন নির্যা’তন করা হয়!

সম্প্রতি টাইমস অব ইন্ডিয়ার সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে সানি লিওন ও তার সহঅভিনেতা আরবাজ খান কর্মক্ষেত্রে যৌ’ন নির্যা’তন বিষয়ে কথা বলেন।

হলিউডের চিত্রপ্রযোজক হার্ভে ওয়েনস্টেইনের বিরুদ্ধে এক ডজনেরও বেশি যৌ’ন নি’র্যাতনের অ’ভিযোগ ওঠার পর সরব হয় সিনে দুনিয়া। #মিটু আন্দোলন জোরদার হয়। আর এই প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন বলিউডের অনেক তারকাও।

#মিটু আন্দোলনে বলিউডে প্রথম বড় প্রতিবাদটি করেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। তার তীব্র অভিযোগ অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে। এসময় তনুশ্রীর পাশে দাঁড়িয়েছেন আরও অনেক তারকা। #মিটু তথা যৌ’ন নির্যা’তন নিয়ে এ পর্যন্ত কথা বলেছেন সাইফ আলি খান, গুলজার, ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন, মৃণাল ঠাকুর, অদিতি রাও হায়দারি, তাপসী পান্নু, মালাইকা অরোরা, কাজল, বরুণ ধাওয়ান, শাহরুখ খান, রাধিকা আপ্তেসহ অনেকেই। এই তালিকায় যোগ হয়েছেন সানি লিওন ও আরবাজ খান।

কর্মক্ষেত্রে যৌ’ননিগ্রহ প্রসঙ্গে সানি লিওন বলেন, অনেক যু’বতী নারীই এরকম নিগ্রহের শি’কার হয়ে থাকেন। এটা শুধু নারীদের ক্ষেত্রে নয়, পুরু’ষদের ক্ষেত্রেও ঘটে। আমি আশা করি, এটা রুখে দেওয়ার মতো শক্তি তাদের রয়েছে। তাদের বলা উচিত, এটা ঠিক নয়। ন্যায়ের জন্য তাদের লড়া উচিত। পরিবর্তন আনতে হলে আপনাকে অবশ্যই কথা বলতে হবে। যদি কথা না বলেন, কিছুই পরিবর্তন হবে না।’

এই অভিনেত্রী পুরু’ষদের আরও জানান, চুপ করে থাকলে তাদের সাহস আরও বাড়বে এবং এই জ’ঘণ্য কাজ তারা ক্রমাগত করবে। তাই এই বিষয়ে মুখ খুলুন। আমার মতে অনেকটাই পরিব’র্তন এসেছে।

এ বিষয়ে একইরকম মত প্রকাশ করেন ‘তেরা ইন্তেজার’ সিনেমায় সানির সহঅভিনেতা আরবাজ খানও।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.