ব্রেকিং নিউজ

নানামুখী চ্যালেঞ্জের বিপরীতে দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: নানামুখী চ্যালেঞ্জের বিপরীতে দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট এবং সক্ষম বর্তমান বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। মেধাবী, বিচক্ষণ, সাহসী, দৃঢ়চেতা ও ধৈর্যের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এবং দেশপ্রেমিক পুলিশ প্রধান হিসেবে ইতোমধ্যেই ১৬ কোটি জনতার বাংলাদেশে ভালোবাসার পাত্রেও পরিণত করেছেন নিজেকে। বঙ্গবন্ধুকন্যা, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও পুলিশ প্রশাসনে স্বচ্ছ ইমেজ, মেধাবী ও পেশাদার এ কর্মকর্তার ওপর পূর্ণ আস্থা রেখে তার কাঁধেই পড়িয়েছেন পুলিশপ্রধানের র‌্যাংক ব্যাজ।

নেতৃত্বের নন্দিত মহিমায় উদ্ভাসিত দৃঢ়, সাহসী ও বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্ব দিয়েই দেশে জঙ্গিবাদ দমন ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও নাগরিকদের ভোটাধিকার প্রয়োগের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার কৃতিত্বও অর্জন করেছেন ইতোমধ্যে। যেখানে বিভিন্ন মহলেরও ভাষ্য ছিল— নতুন এ আইজিপির জন্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নাগরিকদের ভোটাধিকার প্রয়োগের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

চ্যালেঞ্জ যেখানে পুলিশের জন্য নৈমিত্তিক বিষয় সেখানে চ্যালেঞ্জ নেয়াটাও এ বাহিনীর জন্য নতুন কিছু নয়। নিত্য চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সক্ষম বর্তমান বাংলাদেশের পুলিশপ্রধান জাবেদ পাটোয়ারী।

চাঁদপুর জেলা সদরের বাবুরহাট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক পাস করার মধ্য দিয়েই নানান চ্যালেঞ্জের বিপরীতে নিজেকে গড়ে তুলেছেন ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী।

নানা প্রতিকূলতা ডিঙিয়ে পূর্ণ মনোবল, একাগ্রতা, নিষ্ঠা এবং দৃঢ়প্রত্যয় নিয়ে চাঁদপুরের প্রত্যন্ত মান্দারী গ্রাম থেকে উঠে আসা চ্যালেঞ্জজয়ী পুলিশের এ কর্মকর্তা জয় করেছেন ‘প্রাচ্যের অক্সফোর্ডও’।

স্নাতকোত্তর ডিগ্রি নিয়ে মেধার দৌলতেই বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে যোগ দেন বাংলাদেশ পুলিশে। শুরু থেকেই সফলতার স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি।

৬ষ্ঠ বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে তিনি হয়েছিলেন প্রথম। এরপর থেকেই কর্মজীবনে বাংলাদেশ পুলিশের বিভিন্ন ইউনিটে কাজ করেন তিনি। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে সচিব পদমর্যাদায় গ্রেড-১ পদে পদোন্নতি দেয়া হয় তাকে।

এরপর অ্যাডিশনাল আইজি (গ্রেড-১) স্পেশাল ব্রাঞ্চ, অ্যাডিশনাল আইজি সিআইডি, অ্যাডিশনাল আইজি পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স, পুলিশ কমিশনার রাজশাহী, পুলিশ কমিশনার খুলনা, ডিআইজি সিআইডি, কমান্ড্যান্ট-পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার নোয়াখালী, কমান্ড্যান্ট-পুলিশ ট্রেনিং সেন্টার রংপুর, পরিচালক-পুলিশ স্টাফ কলেজ, এসএস নগর বিশেষ শাখা ঢাকা, এডিসি ডিএমপি, স্টাফ অফিসার টু আইজিপি, অ্যাডিশনাল এসপি সিলেট, রাষ্ট্রপতির পুলিশ লিয়াজোঁ অফিসার এবং এএসপি নেত্রকোণা হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

আন্তর্জাতিক কর্মক্ষেত্রেও জাবেদ পাটোয়ারী জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন সুদানে উপ-পুলিশ কমিশনার (ভারপ্রাপ্ত), জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন কসোভোতে মিসিং পারসন ইউনিটের প্রশাসন বিভাগের প্রধান, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশন সিয়েরালিওনে ইউএন প্রটেকশন ফোর্সের অপারেশন প্রধান এবং ক্রোয়েশিয়ায় স্টেশন কমান্ডার হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন।

এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদা, রাজশাহী, পুলিশ স্টাফ কলেজ ঢাকা, ডিটেকটিভ ট্রেনিং স্কুল ঢাকা, স্কুল অব ইন্টেলিজেন্স স্পেশাল ব্রাঞ্চ ঢাকা, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়-এর একজন রিসোর্স পার্সন হিসেবে বিভিন্ন বিষয়ে পাঠদান করেন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকল্যাণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটে ‘ভিক্টিমোলোজি অ্যান্ড রেস্টোরেটিভ জাস্টিস’ বিষয়ে এবং মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, টাঙ্গাইলের ‘ক্রিমিনোলজি অ্যান্ড পুলিশ সায়েন্স বিভাগ’-এরও একজন ভিজিটিং ফ্যাকাল্টি। আদতে কর্মজীবনে নানামুখী চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেই সামনে এগিয়েছেন পুলিশের সর্বোচ্চ পদমর্যাদার এ কর্মকর্তা। সংগ্রামী শৈশব-কৈশোর পেরিয়ে চাকরিজীবনেও সবক্ষেত্রে সব চ্যালেঞ্জে উত্তীর্ণ হন তিনি।

বিশেষ করে পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে সুনাম ও সফলতার সঙ্গে অগ্রগতির মিছিলে শামিল করেছেন সংস্থাকে। যদিও বারবার পুলিশের সর্বোচ্চ পদে অধিষ্ঠিত হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করা সত্ত্বেও সক্রিয় একটি প্রতিপক্ষের কাছে ঘায়েল হয়েছেন বলে বিভিন্ন মহলে উচ্চারিত হয়েছে।

তবুও দমে যাননি অদম্য ড. জাবেদ পাটোয়ারী। নিজ দায়িত্বে মেধার স্বাক্ষর রেখে সততা ও বিশ্বস্ততার সঙ্গেই পাড়ি দিচ্ছেন বন্ধুর পথ। অসীম ধৈর্যের পরীক্ষায় নিজেকে উত্তীর্ণ করে পর্যুদস্ত করেছেন সেই মহলবিশেষকে। চ্যালেঞ্জজয়ী এবং শত বাধা-বিপত্তি ও প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবিলা করেই ভবিষ্যৎ জীবনেও জয়ী হবেন বলেই মনে করছেন খোদ পুলিশ বাহিনীরই বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাসহ শুভাকাঙ্ক্ষীরা। গত দুবছর পূর্বে বাংলাদেশ পুলিশের শীর্ষ এ পদটিতে পরিবর্তনের খবরও যখন আলোচনায় আসে এবং সে সময় তার সামনের দিনগুলোতে নানামুখী চ্যালেঞ্জের কথাও আলোচনায় আসে।

এসব আলোচনার মধ্যেই জাবেদ পাটোয়ারীর শুভাকাঙ্ক্ষীরা বলেছিলেন, জীবনের পরতে পরতে সব চ্যালেঞ্জেই সফলতার সঙ্গে উত্তীর্ণ হয়েছেন এবং চ্যালেঞ্জ তার জন্য নতুন কোনো বিষয় নয়।

পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) প্রধান হিসেবে সুনাম ও সফলতার সঙ্গে একটানা ৯ বছর দায়িত্ব পালনকালে ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী জেএমবির আমির মাওলানা সাইদুর রহমানের গ্রেপ্তার থেকে শুরু করে জঙ্গিবিরোধী বেশ কটি বড় অভিযানে সাফল্যের পুরো কৃতিত্বও যোগ করে নেন তার ঝুলিতে। সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ দমনেও আকাশ ছুঁয়ে যেন দণ্ডায়মান তার শির। এর মধ্য দিয়ে শুভাকাঙ্ক্ষীদের মনবাসনার প্রতিফলনও ঘটাতে সক্ষম হন তিনি।

দায়িত্বে থেকেও অতীতে যারা পারেননি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিষয়ে ৬৬ হাজার ক্লাসিফায়েড গোয়েন্দা তথ্য বিশেষভাবে সংরক্ষণ করতে সেটিও করে দেখিয়েছেন জাবেদ পাটোয়ারী। দক্ষতা, বলিষ্ঠতা ও গতিশীল নেতৃত্বের অনন্য এক উচ্চতায় তিনিই নিয়ে গেছেন পুলিশের বিশেষ শাখাকে।

সংগ্রাম-সাফল্যে ভরপুর এমন ঘটনাপ্রবাহই প্রমাণ করে অতীতের ধারাবাহিকতায় জঙ্গিবাদ দমন ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করার চ্যালেঞ্জ এবং সততার অনন্য উদাহরণ ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী। তার পরিচিতজন থেকে শুরু করে সর্বমহলেই এটি জানা এবং ভবিষ্যতেও সফল হবেন— বর্তমান বাস্তবতার নিরিখে এটাই ভাবছেন তার শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

পুলিশপ্রধানের দায়িত্ব গ্রহণের পর তার উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, সন্ত্রাস-মাদক, জঙ্গিবাদ নির্মূল হবে; সেটাই আমরা চাচ্ছি। দেশে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ থাকুক। উন্নয়নের ধারা যেন অব্যাহত থাকে সেটাই আমরা চাই। একাদশ জাতীয় নির্বাচন নির্বিঘ্ন করার মধ্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সে আশারও প্রতিফলন ঘটিয়েছেন তিনি-এমনটাই মনে করছেন অনেকে। সেই সময় ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীকে ‘নির্ভরযোগ্য’ মানুষ বলেই মন্তব্য করেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারীর উচ্ছ্বসিত প্রশংসায় মন্ত্রী বলেছিলেন, পুলিশের গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান হিসেবেও নির্ভরযোগ্যভাবেই কাজ করেছেন ড. জাবেদ পাটোয়ারী।

পুলিশের ইতিবাচক ভাবমূর্তি বিনির্মাণ এবং নিজ জীবনের মতোই ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী পুলিশ বাহিনীকেও সাফল্যের চূড়ান্ত শিখরে নিয়ে যাবেন— এমন প্রত্যাশা বাংলাদেশের ১৬ কোটি জনতার।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.