গাজীপুরে বেতন ও বোনাস দাবিতে পোশাক শ্রমিকদের বিক্ষোভ

নিউজ টাঙ্গাইল ডেস্ক: গাজীপুরে দু’মাসের বেতন ও ঈদ বোনাসসহ পাওনাদি পরিশোধ এবং বন্ধ কারখানা চালুর দাবিতে বৃহস্পতিবার এক পোশাক কারখানার শ্রমিকরা বিক্ষোভ করেছে। এ সময় বিক্ষুব্ধ শ্রমিকরা ঢাকা-গাজীপুর সড়ক প্রায় দু’ঘণ্টা অবরোধ করে। এতে দীর্ঘ যানজটে আটকা পড়ে গরমের মাঝে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে যাত্রী ও পথচারীকে।

শিল্পাঞ্চল পুলিশ ও আন্দোলনরত শ্রমিকরা জানান, গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ভোগড়া চৌধুরীবাড়ি এলাকার ‘মে ফ্যাশন’ পোশাক কারখানাটি উৎপাদন কাজের অর্ডার না থাকায় এপ্রিল মাসের প্রথম সপ্তাহে খোলার কথা বলে গত ১৯ মার্চ বন্ধ ঘোষণা করে কর্তৃপক্ষ। লুৎফর রহমান মালিকনাধীন এ কারখানার প্রায় ৭শ’ শ্রমিক রয়েছে।

বন্ধ ঘোষণার সময় শ্রমিকদের মার্চ মাসের বেতন পরিশোধ করা হয়। মূলত লুৎফর রহমানের এক আত্মীয়ের মালিকানাধীন স্থানীয় ‘টার্গেট ফাইন ওয়াশ’ কারখানার সাব-কন্ট্রাক্ট নিয়ে এ কারখানায় পোশাক তৈরি করা হতো। মূল কারখানায় উৎপাদন কাজের অর্ডার না থাকায় এ কারখানা কাজ শূন্য হয়ে পড়ে। কর্তৃপক্ষের ঘোষণা অনুযায়ী শ্রমিকরা কয়েকদিন আগে লকডাউনের কারণে সরকার ঘোষিত এপ্রিল মাসের শতকরা ৬০ভাগ-বেতনসহ তাদের পাওনাদি পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোভ করে।

শ্রমিক অসন্তোষের মুখে কারখানা কর্তৃপক্ষ বৃহস্পতিবার শ্রমিক প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনায় বসার তারিখ ঘোষণা দেয় এবং কয়েক শ্রমিকের আংশিক বেতন পরিশোধ করে। ইতোমধ্যে ভবনটি দুর্বল এবং উৎপাদন কাজের অর্ডার না থাকাসহ বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে কারখানাটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

এছাড়া শ্রমিকদের মোট পাওনাদি পরিশোধের পরিবর্তে প্রতি শ্রমিককে শুধু চার হাজার দুইশ’ টাকা করে দিয়ে তাদের কাছ থেকে মাফমুক্তি চেয়ে বিষয়টি নিষ্পত্তির মধ্য দিয়ে কারখানাটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়। কারখানা কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে কয়েক শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা কর্তৃপক্ষের ওই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে।

নিউজ টাঙ্গাইলের সর্বশেষ খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি অনুসরণ করুন - "নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.