ময়মনসিংহে কোভিড রোগীর ৩৫ ভাগই ঈদের পর আক্রান্ত

ময়মনসিংহে কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা ৬০০ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে ঈদের পর গত ১০ দিনে আক্রান্ত হয়েছেন ২১২ জন, যা মোট আক্রান্তের ৩৫ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ২৪ জনের করোনাভাইরাসের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার পর এ তথ্য জানায় সিভিল সার্জন কার্যালয়। ময়মনসিংহ জেলায় সংক্রমিত মানুষের সংখ্যা বেড়ে ৬০২ জন হয়েছে বলে জানানো হয়।

সংক্রমিত লোকজনের তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা যায়, জেলায় প্রথম কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছিল গত ৮ এপ্রিল। এরপর সংখ্যাটি ১০০ স্পর্শ করতে সময় লেগেছিল ১৯ দিন। ২০০ পার হয় আরও ১২ দিন পর। প্রথম ২০০ ছাড়াতে ৩১ দিন অতিবাহিত হলেও পরের ২০০ ছাড়াতে সময় নেয় মাত্র ১৮ দিন। আর সবশেষ গত কয়েক দিনে আরও ২০০ আক্রান্ত হলে সংখ্যাটি ৬০০ ছাড়িয়ে যায়। সব মিলিয়ে গত ৫৭ দিনে ৬০২ জন আক্রান্ত হলেন।

সিভিল সার্জন এ বি এম মসিউল আলম জানান, জেলায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন সদর উপজেলায়। সেখানে ৩৪৫ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মোট আক্রান্তের ৫৭ শতাংশই সদর উপজেলার। তাঁদের মধ্যে ১৭৮ জন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মী। এ ছাড়া ভালুকায় ৫০ জন, ঈশ্বরগঞ্জে ৩৫ জন, ধোবাউড়ায় ৩৪ জন, গফরগাঁও উপজেলায় ৩১ জন, ফুলপুরে ২৫ জন, ত্রিশালে ১৯ জন, মুক্তাগাছায় ১৪ জন, ফুলবাড়িয়ায় ১৪ জনসহ জেলার ১৩ উপজেলাতেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়েছে।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, জেলায় আক্রান্ত লোকজনের মধ্যে ৩৯৪ জন আইসোলেশনে রয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ৩৬৬ জন নিজ বাড়িতে হোম আইসোলেশনে এবং ২৮ জন প্রাতিষ্ঠানিক আইসোলেশনে ভর্তি রয়েছেন। সংক্রমিত লোকজনের মধ্যে ১৯৪ জন সুস্থ হয়েছেন। সুস্থতার হার ৩২ শতাংশ। এ ছাড়া ৮ জনকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। জেলায় এখন পর্যন্ত কোভিড-১৯-এ আক্রান্ত ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.