ব্রেকিং নিউজ

চাকরি পুনর্বহালের দাবিতে আন্দোলনে গার্মেন্ট শ্রমিকরা

চাকরিতে পুনর্বহাল ও বেতনের দাবিতে প্রতীকী অনশন পালন করেছেন আশুলিয়ার গার্মেন্ট শ্রমিকরা। রোববার জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের আয়োজনে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ফুটপাতে বসে এ অনশন পালন করা হয়। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয় আজকের কর্মসূচিতে।

আন্দোলনকারীরা জানান, আশুলিয়ার উইন্ডি গ্রুপের ৮টি কারখানার মধ্যে স্যাবোল্ট টেক্স, উইন্ডি ওয়েট অ্যান্ড ড্রাই প্রসেসিং লি., এবং তানাজ ফ্যাশানের ৩ হাজার শ্রমিককে বিনা কারণে ছাঁটাই করা হয়েছে। এ ছাঁটাই উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং শ্রমিকদের ইউনিয়ন গঠনের প্রক্রিয়াকে ধ্বংস করার অসৎ উদ্দেশ্য থেকে করা হয়েছে। গ্রুপের অপর ৫টি কারখানায় কাউকে ছাঁটাই করা হয়নি।

তারা জানান, গার্মেন্টের মালিকের স্বার্থে গড়া ইউনিয়ন নেতৃত্বের বিরুদ্ধে সব শ্রমিক ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইউনিয়ন গঠন করায় স্যাবোল্ট টেক্সের ১ হাজার ৬০০ শ্রমিক, উইন্ডি ওয়েট অ্যান্ড ড্রাই প্রসেসিংয়ের ২০০ জন এবং তানাজ ফ্যাশনের ১ হাজার ২০০ জনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। ছাঁটায়ের পর শ্রমিকদের নামেমাত্র বেতন দেয়া হয়েছে।

বকেয়া বেতন পরিশোধসহ চাকরিতে পুনর্বহালে শতাধিক শ্রমিক রাস্তার পাশে ফুটপাতের ওপর বসে প্রতীকী অনশন পালন করেন। সকাল ১০টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত তারা অনশন পালন করেন।

জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন বলেন, উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে উইন্ডি গ্রুপের তিন কারখানা থেকে ৩ হাজার শ্রমিককে ছাঁটাই করা হয়েছে। নিজেদের অধিকার আদায়ে শ্রমিক ইউনিয়ন গঠন করায় প্রতিষ্ঠানের মালিক তাদের চাকরিচ্যুত করার সিদ্ধান্ত নেয়।

তিনি বলেন, ছাঁটাই করা সব শ্রমিককে পাওনা বকেয়া বেতন পরিশোধ করে আবারও তাদের পুনর্বহাল করতে হবে। এ দাবি মেনে নেয়া না হলে এ আন্দোলন কঠিন হয়ে উঠেবে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে শ্রমিকদের দাবি মেনে নেয়া না হলে আশুলিয়ার এসব গার্মেন্ট ঘোরাও কর্মসূচি পালনসহ সংশ্লিষ্ট দফতরগুলোতে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে।

এতে আরও বক্তব্য রাখেন বিল্পবী গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি সালা উদ্দিন স্বপন, একতা গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সম্পাদক কামরুল হাসান, মো. ফরিদুল ইসলাম প্রমুখ।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.