মসজিদের সামনে চিত্রনায়িকা মুনমুনের নাচ, তওবা করে ক্ষমা প্রার্থনা

নিজস্ব প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের সখীপুরে একটি মসজিদের সামনে চিত্রনায়িকা মুনমুনকে নিয়ে নাচের আয়োজন করায় অবশেষে ক্ষমা চেয়েছেন আয়োজকরা। একই সঙ্গে মসজিদের সামনে এসে তওবা করে আল্লাহ ও দেশবাসীর কাছে ক্ষমাও চেয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার পলাশতলীর ওই মসজিদের সামনে এসে তওবা করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন আয়োজকরা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান কাজী আশরাফ সিদ্দিকী, উপজেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আ. খালেক মাস্টার, এনায়েত করিম পীর সাহেব, মফিজ উদ্দিন মাস্টার, পলাশতলী কলেজের অধ্যক্ষ আবু সাঈদ, ডা. দেলোয়ার হোসেন,  সাবেক ইউপি সদস্য আবদুস সামাদ ও রফিকুল ইসলাম। তওবা শেষে মসজিদটি সংস্কারের সহযোগিতার আশ্বাস দেন আয়োজকরা।

এ ঘটনায় অনুতপ্ত হয়ে আল মদিনা সমবায় সমিতির সাবেক সভাপতি ও উপজেলা মাইক্রোবাস মালিক সমিতির সভাপতি মো. স্বপন বলেন, আমরা মুসলমানের সন্তান। ওটি মসজিদ বিষয়টি জানা থাকলে এ রকম আয়োজন করতাম না। আমরা দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চাই। ভবিষ্যতে আর মানুষ যেন মসজিদটি চিনতে আমাদের মতো ভুল না করে সেজন্য মসজিদ সংস্কারে সহযোগিতা করা হবে।

উপজেলা কওমি উলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা সাইফুল্লাহ বেলালী বলেন, আয়োজকরা ভুল স্বীকার করে তওবা করেছেন। তারা ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ আর না করার অঙ্গীকার করেছেন। এ ব্যাপারে আমাদের আর কোনো অভিযোগ নেই। আল্লাহ পাক আয়োজকদের তওবা কবুল করুন। সবাইকে ক্ষমা করে দেক।

প্রসঙ্গত প্রকাশ, গত শনিবার (০৫ সেপ্টেম্বর) উপজেলা মাইক্রোবাস মালিক ও শ্রমিকদের সমন্বয়ে গঠিত আল মদিনা সমবায় সমিতি চিত্রনায়িকা মুনমুনকে টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার পলাশতলীতে নৌকা ভ্রমণে আমন্ত্রণ করে নিয়ে আসে। ভ্রমণ শেষে স্থানীয় বাজারে একটি মসজিদের সামনে সাউন্ড সিস্টেম বসিয়ে নায়িকা মুনমুনকে নিয়ে নাচের আসর বসানো হয়। পরে সেই নাচের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এ নিয়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়।

"নিউজ টাঙ্গাইল"র ইউটিউব চ্যানেল SUBSCRIBE করতে ক্লিক করুন।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.