ব্রেকিং নিউজ :

কালিহাতীতে চাঁদাবাজি বন্ধে দোকান ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ মিছিল

শুভ্র মজুমদার, কালিহাতী (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি:- টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বিভিন্ন শপিংমল, টেলিকম, প্রাইভেট ক্লিনিক, ফার্মেসি, ফ্রিজ-টেলিভিশনের শোরুম, বস্ত্র বিপণীসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চঁাদাবাজি বন্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেছে দোকান ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় কালিহাতী কলেজ মোড় বণিক সমিতির উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিলটি কলেজ মোড় থেকে শুরু করে কালিহাতী থানায় গিয়ে মিলিত হয়।

পরে কালিহাতী থানার ওসি সওগাতুল আলম চাঁদাবাজি বন্ধে ব্যবসায়ীদের সাথে বসে আলোচনার মাধ্যমে তাদের সকল সমস্যা নিরসনে আইনী সহায়তার আশ্বাস দিলে ব্যবসায়ীরা মিছিল বন্ধ করে স্ব স্ব ব্যবস্যায়ী প্রতিষ্ঠানে ফিরে যায়।

এসময় কালিহাতী কলেজ মোড় বণিক সমিতির সভাপতি রেজাউল ইসলাম বাবু, সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শহীদুল ইসলাম বুলেট, নিরাময় জেনারেল প্রাইভেট হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক ওয়াদুদ তৌহিদ, নাজনীন শপিং মলের সানোয়ার বস্ত্রালয়ের সত্ত্বাধিকারী সানোয়ার হোসেন, মাহিম ফ্যাশনের সত্ত্বাধিকারী মহিম সিদ্দিকী ও যমুনা ওয়েস্টার্ন শোরুমের সত্ত্বাধিকারী মিজানুর রহমান মজনু সহ কালিহাতী কলেজ মোড় বণিক সমিতির সকল ব্যবস্যায়ীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বিক্ষোভ মিছিলে ব্যবস্যায়ীরা চাঁদাবাজ সাগরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।

উল্লেখ্য, গত ২৭ অক্টোবর কালিহাতী পৌরসভার সাতুটিয়া গ্রামের শ্রমিক নেতা শহিদুল ইসলাম শহীদের ছেলে একাধিক মামলার আসামি সাগর তার লোকজন নিয়ে নাজনীন শপিং মলের সানোয়ার বস্ত্রালয়ের সত্ত্বাধিকারী সানোয়ার হোসেনের ছোট ভাই কালাম গার্মেন্টসে গিয়ে সত্ত্বাধিকারী কালামের নিকট চঁাদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকার করায় সাগর তার বাহিনী নিয়ে কালামের দোকানে ও কালামের উপর অতর্কিত হামলা চালায়। এ ঘটনায় কালামসহ তিন জন আহত হয়। পরে আশে পাশের দোকান ব্যবসায়ীরা এগিয়ে আসলে সাগর পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে ব্যবস্যায়ীরা তাকে ধরে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.