ব্রেকিং নিউজ :

এবার ৬০ বছরের বৃদ্ধের সাথে ১২ বছরের মেয়ের বিয়ে!

অনলাইন ডেস্ক, টাঙ্গাইল: ফরিদপুরের সদরপুরে ১২ বছরের মেয়ের সাথে ৬০ বছর বয়সী মোহাম্মাদ ফকিরের বিয়ের ঘটনা ঘটেছে। ১২ বছরের শিশুটি একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। ২০ অক্টোবর গোপনে নোটারি পাবলিক এর মাধ্যমে শিশুটিকে বিয়ে করে ওই বৃদ্ধ।

বিয়ের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন মেয়ের মা ফাতেমা বেগম। বাল্য বিয়ের ব্যাপারে মেয়ের বাবা মো. হাবিব পেয়াদা বাধা দিলে তার স্ত্রী গোপনে বিয়ের পিঁড়িতে বসান নাবালিকা কন্যাকে। এ ঘটনায় মেয়ের বাড়িতে নতুন জামাই হিসেবে মোহাম্মদ গেলে মেয়ের আত্মীয়- স্বজন ও প্রতিবেশীরা তাকে আটক করে।

মোহাম্মদ ফকির সদরপুর উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়নের শৌলডুবী গ্রামের মৃত কালু ফকিরের ছেলে। বিয়ের ঘটনা ঘটে সদরপুর উপজেলার সতেররশি গ্রামে। খবর পেয়ে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে সদরপুর উপজেলার ইউএনও পূরবী গোলদার মেয়ের বাড়িতে ছুঁটে যান। পরে ইউএনও‘র নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত বর মোহাম্মদ ফকির, মেয়ের মা ফাতেমা বেগম, বিয়ের সাথে জড়িত মেয়ের নানা ও নানীকে আটক করেন।

পরে বাল্যবিয়ের দায়ে বর মোহাম্মদকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।জরিমানা অনাদায়ে আরও তিন মাসের কারাদন্ড ভোগ করতে হবে। অপরদিকে আদালত মেয়ের মা ফাতেমা বেগম কে ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড এবং মেয়ের নানা-নানীকে এক মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেন। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও পূরবী গোলদার সাংবাদিকদের জানান, ২০১৭ সালের বাল্যবিবাহ নিরোধ আইনের বিভিন্ন ধারায় এ শাস্তি দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.